বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > করোনার ছুতোয় কলকাতা পুরসভার ক্ষমতা দখলে রাখার খেলায় নেমেছে রাজ্য সরকার: ধনখড়
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

করোনার ছুতোয় কলকাতা পুরসভার ক্ষমতা দখলে রাখার খেলায় নেমেছে রাজ্য সরকার: ধনখড়

  • রাজ্য সরকারকে তীব্র আক্রমণ করে রাজ্যপাল বলেন, ‘করোনা সংকটের মধ্যে এই ধরণের সংকীর্ণ রাজনীতির খেলা কেন খেলব আমরা?

কলকাতা পুরসভার প্রশাসনিক বোর্ডে বিদায়ী মেয়র ও মেয়র পারিষদদের নিয়োগে কেন্দ্র করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সংবিধানকে অমান্য করার জোড়া অভিযোগ আনলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তাঁর অভিযোগ, মুখ্যমন্ত্রীর কাছে কলকাতা পুরসভার প্রশাসনিক বোর্ড নিয়োগের নির্দেশিকা চেয়েও পাননি তিনি। শুক্রবার সংবাদসংস্থা এএনআইকে একথা জানিয়েছেন রাজ্যপাল।  

ধনখড় বলেন, ‘সংবিধানের ১৬৭ নম্বর অনুচ্ছেদ অনুসারে আমাকে আমার ক্ষমতা প্রয়োগ করতে হয়েছে। এই অনুচ্ছেদ অনুসারে রাজ্যপাল কোনও তথ্য জানতে চাইলে মুখ্যমন্ত্রী তা জানাতে বাধ্য। আমি তাঁর কাছে তথ্য জানতে চেয়েছি। একই তথ্য মুখ্যসচিবের কাছেও জানতে চেয়েছিলাম। সেই তথ্য আমার কাছে এসে পৌঁছলে আমি সিদ্ধান্ত নেব।‘ 

একই সঙ্গে রাজ্যপাল জানান, ‘ভারতীয় সংবিধানের ২৪৩ ইউ অনুচ্ছেদে স্পষ্ট লেখা রয়েছে পাঁচ বছরের কার্যকাল ফুরালে কোনও মতেই তারা আর পদে থাকতে পারবেন না। প্রশাসনিক ক্ষমতা ব্যবহার করে একই ব্যক্তিদের পদের নাম বদলে একই দায়িত্বে রেখে দেওয়া সংবিধানের অবমাননা।‘ 

রাজ্য সরকারকে তীব্র আক্রমণ করে রাজ্যপাল বলেন, ‘করোনা সংকটের মধ্যে এই ধরণের সংকীর্ণ রাজনীতির খেলা কেন খেলব আমরা? করোনার নাম করে রাজনৈতিক ক্ষমতা দখলের জন্য এই কাজ করা হয়েছে।‘

বলে রাখি, শুক্রবার থেকে কলকাতা পুরসভার প্রধান প্রশাসক হিসাবে কার্যকাল শুরু করেছেন বিদায়ী মেয়র তথা পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। 

 

বন্ধ করুন