বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দূরত্ববিধি মেনেই দক্ষিণেশ্বরে ভবতারিণীর কাছে ভক্তরা, নিয়মে বদল, রাতভর চলবে পুজো
দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে ভক্তরা। ছবি : সংগৃহীত
দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে ভক্তরা। ছবি : সংগৃহীত

দূরত্ববিধি মেনেই দক্ষিণেশ্বরে ভবতারিণীর কাছে ভক্তরা, নিয়মে বদল, রাতভর চলবে পুজো

  • মন্দিরের চাতালে প্রায় ২০০ জনকে শারীরিক দূরত্ববিধি মেনে দাঁড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। গঙ্গার ঘাটে বসার কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি। ঘাটে স্নান করে সরাসরি মন্দিরে প্রবেশ করতেও রয়েছে নিষেধ।

করোনা আবহ দমাতে পারল না ভক্তদের। অন্য বছরের মতো এবারও কালীপুজোয় দর্শনার্থীদের ভালই ভিড় দেখা যাচ্ছে দক্ষিণেশ্বর ভবতারিণী মন্দিরে। মন্দির চত্বরের বাইরে থেকে বালি ব্রিজ সর্বত্র র‌য়েছে ভক্তদের ভিড়। আর তার মধ্যেও দূরত্ববিধি, স্যানিটাইজেশন থেকে শুরু করে সমস্ত নিয়ম পালন করছেন মন্দির কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে এবার কালীপুজোয় বেশ কিছু নিয়মে বদল হয়েছে দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে।

পুজো দেওয়ার পরপরই মন্দির ছেড়ে বেরিয়ে যেতে হচ্ছে ভক্তদের। কোথাও বসতে দেওয়া হচ্ছে না তাঁদের। সংক্রমণ এড়াতে এবার কোনও প্রসাদ দেওয়া হবে না। এবার এটাই নিয়ম। মন্দিরে থাকা কোনও জায়ান্ট স্ক্রিনে দেখানো হচ্ছে না পুজো। মন্দিরের চাতালে প্রায় ২০০ জনকে শারীরিক দূরত্ববিধি মেনে দাঁড়ানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে। গঙ্গার ঘাটে বসার কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি। ঘাটে স্নান করে সরাসরি মন্দিরে প্রবেশ করতেও রয়েছে নিষেধ।

দক্ষিণেশ্বর মন্দিরের অছি ও সম্পাদক কুশল চৌধুরী জানান, করোনা পরস্থিতিতেও এবার কালীপুজোর রাতে কোনও ভক্তকে পুজো দেওয়া থেকে বঞ্চিত করা হয়নি। সব কিছুই কোভিড বিধি অক্ষরে অক্ষরে মেনে করা হচ্ছে। আনলক ১ পর্বে যেভাবে নিয়ম মেনে মন্দির খোলা হয়েছিল, সেগুলি বজায় রাখা হচ্ছে। থার্মাল স্ক্যানিংয়ের মাধ্যমে তাপমাত্রা পরীক্ষা করিয়ে স্যানিটাইজেশন টানেলের মধ্য দিয়ে সকলে প্রবেশ করছেন মন্দিরে। সর্বাধিক ১০ জন একসঙ্গে প্রবেশ করছেন মন্দিরে। আজ সারারাত ধরে পুজো নেওয়া হবে। অনলাইনে পুজো দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

বন্ধ করুন