বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে আগন্তুকের প্রবেশ, সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে বিবেক সহায়কে!

মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে আগন্তুকের প্রবেশ, সরিয়ে দেওয়া হচ্ছে বিবেক সহায়কে!

রাজ্যের ডিরেক্টর অফ সিকিউরিটি বিবেক সহায়

শনিবার মাঝরাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির পাঁচিল টপকে ঢুকে পড়েন এক আগন্তুক। সারারাত সেখানে ঘাপটি মেরে লুকিয়ে ছিল সে। সকালে গোটা বিষয়টি নজরে আসে। ওই ব্যক্তির নাম হাফিজুল মোল্লা। রবিবার সকালে হাফিজুলকে আটক করতেই মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়।  

মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে পাঁচিল টপকে ঢুকে পড়ে আগন্তুক। সুতরাং সরাসরি নিরাপত্তায় গাফিলতির অভিযোগ ওঠে। এই অভিযোগে সরানো হচ্ছে রাজ্যের ডিরেক্টর অফ সিকিউরিটি বিবেক সহায়কে বলে সূত্রের খবর। আর ডিজি সিকিউরিটির নতুন দায়িত্ব পেতে পারেন মনোজ ভার্মা। তিনি এখন ব্যারাকপুরের কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব সামলাচ্ছেন।

ঠিক কী ঘটেছিল সেদিন?‌ শনিবার মাঝরাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ির পাঁচিল টপকে ঢুকে পড়েন এক আগন্তুক। সারারাত সেখানে ঘাপটি মেরে লুকিয়ে ছিল সে। সকালে গোটা বিষয়টি নজরে আসে। ওই ব্যক্তির নাম হাফিজুল মোল্লা। রবিবার সকালে হাফিজুলকে আটক করতেই মুখ্যমন্ত্রীর নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন উঠে যায়। মুখ্যমন্ত্রীর নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয়ের মধ্যে কী করে বাড়ির মধ্যে ঢুকে পড়লেন ওই ব্যক্তি? উঠেছে প্রশ্ন।

তারপর ঠিক কী ঘটেছিল?‌ এই ঘটনার পর নবান্নে বৈঠক বসে। সেখানে ছিলেন মুখ্যসচিব, ডিজি (‌নিরাপত্তা)‌, পুলিশ কমিশনার–সহ পুলিশের কর্তাব্যক্তিরা। সেখানে মুখ্যসচিব সরাসরি ক্ষোভপ্রকাশ করেন ডিজি (‌নিরাপত্তা)‌ বিবেক সহায়ের উপর। তারপর তদন্তে নেমে দেখা যায়, ওই ব্যক্তির জামায় লুকানো ছিল লোহার রড। সুতরাং কোনও অসৎ উদ্দেশেই সে এসেছিল বলে মনে করে নবান্ন।

ঠিক কী খবর মিলেছে?‌ সূত্রের খবর, আজ, বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে লোক ঢুকে যাওয়া নিয়ে সরব হন শোভনদেব–সহ কয়েকজন মন্ত্রী। যদিও মুখ্যমন্ত্রী তখন চুপ করেই ছিলেন। সেখানে স্বরাষ্ট্র সচিব উপস্থিত ছিলেন। তখন এই বিষয়টি তোলা হয়। আর রাজ্যের ডিরেক্টর অফ সিকিউরিটি বিবেক সহায়কে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

বন্ধ করুন