বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > উর্দিধারীদের এই ধরণের আচরণ খুবই চিন্তাজনক-কলকাতা পুলিশে বিক্ষোভ নিয়ে মমতাকে টুইট ধনখড়ের
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

উর্দিধারীদের এই ধরণের আচরণ খুবই চিন্তাজনক-কলকাতা পুলিশে বিক্ষোভ নিয়ে মমতাকে টুইট ধনখড়ের

ফের প্রশাসনের ওপর তোপ রাজ্যপালের

জায়গায় জায়গায় পুলিশ অসন্তোষ নিয়ে এবার উদ্বেগ প্রকাশ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।    শনিবার টুইটারে সরাসরি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ট্যাগ করে ধনখড় বলেন যে তিনি খুবই চিন্তিত ও এরকম প্রতিবাদের ফলে কলকাতার পুলিশের ঐতিহ্যে আঘাত আসছে। পরে ধনখড় বলেন যে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে এসেছিলেন বিধানসভার বিরোধী দলনেতা আবদুল মান্নান। তিনিও এই নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন বলে জানিয়েছেন ধনখড়। 

গত ১৯ মে থেকে ১১ দিনে তিন জায়গায় পুলিশ বিক্ষোভ হয়েছে। ক্ষোভ সামলাতে হিমশিম খেয়েছে প্রশাসন। এই নিয়েই এবার রাজ্য সরকারকে টার্গেট করলেন ধনখড়। পুলিশ বিক্ষোভের একটি ভিডিও ইংরেজি ও বাংলায় টুইট করে ধনখড় বলেন- 

এছাড়াও আবদুল মান্নান কী বলেছেন, সেটাও টুইট করেন ধনখড়। 

শুক্রবার বিকেলে বিধাননগর সেক্টর ওয়ানে কলকাতা আর্মড পুলিশের চার নম্বর ব্যাটেলিয়নের কর্মীরা বিক্ষোভ দেখান। তাঁদের দাবি, করোনা মোকাবিলায় তাদের সামনে ঠেলে দিলেও সুরক্ষাবিধি মানা হচ্ছে না। এমনকী মিলছে না প্রাপ্য ছুটিও।

বিক্ষোভের খবর পেয়ে বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট থেকে সেখানে পৌঁছন পদস্থ কর্তারা। বিক্ষোভরত পুলিশকর্মীদের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা। 

কলকাতা পুলিশে বিক্ষোভের শুরু গত ১৯ মে রাতে। সেদিন কলকাতার পুলিশ ট্রেনিং স্কুল থেকে কলকাতা পুলিশের কমব্যাট ফোর্সের জওয়ানদের ধাওয়া খেয়ে প্রাণ হাতে নিয়ে পালান সেই বাহিনীরই ডিসি। জওয়ানদের অভিযোগ ছিল, তাদের ছুটি দেওয়া হচ্ছে না। করোনা কবলিত এলাকায় সুরক্ষা ছাড়া কাজ করতে হচ্ছে। এছাড়া ক্যান্টিনে খাবারের মান নিয়েও অভিযোগ ছিল তাঁদের।

চলতি সপ্তাহে বিক্ষোভ হয় গড়ফা থানায়। সেখানে এক পুলিশকর্মীর বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ তুলে নিজেদের থানা নিজেরাই ভাঙচুর করেন পুলিশকর্মীরা।

 

বন্ধ করুন