বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > '২ বছর ভোট হয়নি, আর ১-২ মাস পিছলে কি অসুবিধা হত?' কমিশনকে কটাক্ষ দিলীপের
সাংবাদিকদের মুখোমুখি দিলীপ ঘোষ। নিজস্ব ছবি।
সাংবাদিকদের মুখোমুখি দিলীপ ঘোষ। নিজস্ব ছবি।

'২ বছর ভোট হয়নি, আর ১-২ মাস পিছলে কি অসুবিধা হত?' কমিশনকে কটাক্ষ দিলীপের

  • রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে 'ভোট পিছিয়ে দেওয়া উচিত ছিল' বলে নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করেছেন তিনি।

রাজ্যের ৪ পুরনিগমের ভোট এগিয়ে আসছে। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে আগামী ২২ জানুয়ারি এই পুরনিগমগুলোতে ভোটের দিনক্ষণ ঠিক করেছে নির্বাচন কমিশন। প্রথম থেকেই এই নির্বাচনের বিরোধিতা করে আসছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এবার নির্বাচন নিয়ে আরও একবার রাজ্য নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন বিজেপির সর্ব ভারতীয় সহ সভাপতি। রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে 'ভোট পিছিয়ে দেওয়া উচিত ছিল' বলে নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করেছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'আমরা তো আগেই বলেছিলাম ভোট করার মতো পরিবেশ নেই। একদিকে রাজনৈতিক হিংসা অন্যদিকে করোনার ভয়। নির্বাচন কি করে সফল হবে।' ভোট পিছিয়ে দেওয়া প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, ' দু'বছর ধরে নির্বাচন বাকি রয়েছে। আর এক মাস দুমাস পিছয়ে দিলে কি অসুবিধা হতো।' তাছাড়া এই পরিস্থিতিতে প্রার্থীরা ঠিকমতো প্রচার করতে পারছেন না বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। তিনি বলেন, ' করোনা সংক্রমনের আশংকায় ভোটাররা বাইরে বের হচ্ছেন না । ভোট প্রচারে গেলে মানুষ দরজা খুলছে না। লিফলেট নিচ্ছেন না। তাহলে ভোট প্রচার কি করে হবে!'

সেইসঙ্গে করোনা মোকাবেলায় 'প্রশাসনের উদ্যোগ দেখা যাচ্ছে না' বলেও রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করেছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর কটাক্ষ, 'প্রশাসনের উদ্যোগ শুধু স্কুল কলেজ বন্ধ করে দেওয়া, আর লোকাল ট্রেন কমিয়ে দেওয়া। তার বাইরে তো কিছুই দেখছি না। কি করে কমবে। আমি কলেজ স্ট্রিটে গেলাম সেখানে দেখলাম বইমেলার মত উপচে পড়া ভিড় হচ্ছে।' এনিয়ে সরকারকে একটা নির্দিষ্ট পদ্ধতি ঠিক করা উচিত বলে তিনি মনে করেন।

বন্ধ করুন