বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > লোকের কাছে ভালো হতে চাইছেন, ক্ষমতাও ভোগ করতে চাইছেন, অভিষেককে কটাক্ষ দিলীপের
দিলীপ ঘোষ ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

লোকের কাছে ভালো হতে চাইছেন, ক্ষমতাও ভোগ করতে চাইছেন, অভিষেককে কটাক্ষ দিলীপের

  • দিলীপ ঘোষের প্রশ্ন, ‘ওনার যদি মনে হয়, ওনার পার্টি না চাইলে এখানকার নির্বাচন কমিশনের কী হিম্মত আছে ভোট করানোর? ওদের তো বকলমে করানো হচ্ছে।

করোনা সংক্রমণ রোধে ২ মাস রাজনৈতিক সভা বন্ধ রাখার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রস্তাবকে কটাক্ষ করলেন বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন বিকেলে দলের রাজ্য সদর দফতরে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে দ্বিচারিতার অভিযোগ করেন তিনি। বলেন, লোককে খুশি করার জন্য বিবৃতি দেব আবার নির্বাচনও করাবো, ২টো একসঙ্গে হতে পারে না।

এদিন দিলীপবাবু বলেন, ‘যদি তৃণমূলের মহামন্ত্রী মনে করেন ভোট না হওয়া উচিত, তাহলে উনি কেন বলছেন না পার্টির মধ্যে? উনি তো সেকেন্ড ইন কম্যান্ড। কীসের স্বার্থে বলছেন না তিনি? না কি লোকের কাছে ভালো হতে চাইছেন, ক্ষমতাও ভোগ করতে চাইছেন। দুটো হতে পারে না’।

দিলীপ ঘোষের প্রশ্ন, ‘ওনার যদি মনে হয়, ওনার পার্টি না চাইলে এখানকার নির্বাচন কমিশনের কী হিম্মত আছে ভোট করানোর? ওদের তো বকলমে করানো হচ্ছে। আমরাও তো বলছি, এক দু’মাস থাক বন্ধ কী সমস্যা আছে? যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে তখন দেখা যাবে। যদি স্কুল কলেজ বন্ধ হয় ছেলেমেয়েদের ভবিষ্যৎ বন্ধ করে দিয়ে। পরীক্ষা না হয়, চলচ্চিত্র উৎসব খেলাখুলো বন্ধ হয়। তো ভোট কেন বন্ধ হবে না?

বিজেপিও চার পুরসভায় ভোটগ্রহণ স্থগিত রাখার পক্ষে বলে জানিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘২ বছর কেন ভোট করেননি। শুধু লোককে খুশি করার জন্য বিবৃতি দিলে হবে না। এই সব প্রশ্নেরও জবাব দিতে হবে’।

বলে রাখি, শনিবার দুপুরে আলিপুরে দক্ষিণ ২৪ পরগনার প্রশাসনিক বৈঠকের পর অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, আপাতত ২ মাস ডায়মন্ড হারবার লোকসভা এলাকায় সমস্ত রাজনৈতিক সভা বন্ধ রাখা উচিত। ধর্মীয় সভা সীমিত পরিসরে আয়োজন করা উচিত। এটা আমার ব্যক্তিগত মত।

 

বন্ধ করুন