বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > এমন ঝটকা খেয়েছেন যে মাস্টারমশাই চুপ মেরে গিয়েছেন: দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

এমন ঝটকা খেয়েছেন যে মাস্টারমশাই চুপ মেরে গিয়েছেন: দিলীপ ঘোষ

  • মর্নিং ওয়াক শেষে সাংবাদিকদের দিলীপবাবু বলেন, ‘শুভেন্দুকে নিয়ে মাস্টারমশাই খুব বড় বড় কথা বলছিলেন। এমন ঝটকা খেয়েছেন যে চুপ মেরে গিয়েছেন।

শুভেন্দুকে নিয়ে রাজনৈতিক জল্পনার মধ্যেই জারি তৃণমূল – বিজেপি বাকযুদ্ধ। বুধবার শুভেন্দু ‘আপনাদের সঙ্গে কাজ করা মুশকিল’ বলে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ করতেই সৌগত রায়কে আক্রমণ করলেন দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতা লাগোয়া নিউ টাউনের ইকো পার্কে প্রাতর্ভ্রমণে গিয়ে দিলীপ ঘোষ সৌগত রায়কে বিদ্রুপ করেন। বলেন, ‘মাস্টারমশাই এমন ঝটকা খেয়েছেন যে চুপ মেরে গিয়েছেন।’

বৃহস্পতিবার সকালে দিলীপ ঘোষের মর্নিং ওয়াকের সময় ইকোপার্কের ভিতরেও ছড়ায় রাজনৈতিক উত্তাপ। এদিনও ‘সব বেচে দে’ লেখা ইকো পার্কে শরীরচর্চা করতে দেখা যায় তৃণমূল কর্মীদের। 

মর্নিং ওয়াক শেষে সাংবাদিকদের দিলীপবাবু বলেন, ‘শুভেন্দুকে নিয়ে মাস্টারমশাই খুব বড় বড় কথা বলছিলেন। এমন ঝটকা খেয়েছেন যে চুপ মেরে গিয়েছেন। সাইড লাইনে বসে থাকেন এক্সট্রা প্লেয়ার হিসেবে। মাঠে নেমে সেমসাইড গোল খেয়ে গিয়েছে তৃণমূল। আর মনে হয় সেই ভুলটা তারা করবেন না।‘

তাঁর মর্নিং ওয়াকের সময় তৃণমূল কর্মীদের শরীরচর্চাকে বিদ্রুপ করে রাজ্য বিজেপি সভাপতি বলেন, ‘জামায় পুরোটা লিখতে ভুলে গিয়েছে। সামনে একটা যাওয়ার আগে বসবে। হবে, যাওয়ার আগে সব বেচে দে।’ সঙ্গে তাঁর কটাক্ষ, নরেন্দ্র মোদীর ফিট ইন্ডিয়া অভিযানে উদ্বুদ্ধ হয়ে শরীরচর্চা করতে নেমেছেন তৃণমূলকর্মীরা। 

মঙ্গলবার রাতে অভিষেক – শুভেন্দু বৈঠকের পর সৌগতবাবু সংবাদমাধ্যমের সামনে দাবি করেন, সব মিটে গিয়েছে। তবে বুধবার প্রবীণ এই সাংসদকে হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ করে শুভেন্দু জানান, ‘আপনাদের সঙ্গে কাজ করা মুশকিল।’ এর পর দৃশ্যত হতাশ হয়ে পড়েন সৌগত রায়। 

 

বন্ধ করুন