রবিহার শহিদ মিনারের সমাবেশে অমিত শাহের সঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। (PTI)
রবিহার শহিদ মিনারের সমাবেশে অমিত শাহের সঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। (PTI)

দিল্লি হিংসা পরিকল্পিত হলে, পশ্চিমবঙ্গে CAA বিরোধী হিংসাও কি... প্রশ্ন দিলীপের

  • খ্যমন্ত্রীর মন্তব্যকে দায়িত্বজ্ঞানহীন বলে ভর্ৎসনা করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘একজন মুখ্যমন্ত্রী হয়ে দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো কথা বলছেন।

দিল্লি হামলাকে ‘রাষ্ট্রের মদতে পরিকল্পিত গণহত্যা’ বলায় পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র সমালোচনা করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সোমবার সংবাদমাধ্যমকে প্রতিক্রিয়ায় দিলীপবাবুর পালটা কটাক্ষ, ‘তাহলে কি ধরে নেব এরাজ্যে CAA বিরোধী হিংসায় যে সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস হয়েছে, তা মমতা ব্যানার্জি করিয়েছেন।‘

এদিন দিলীপবাবু প্রশ্ন তুলেছেন, ‘দিল্লিতে কী হয়েছে জানতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এত সময় লাগল কেন? উনি তো ভুবনেশ্বরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে একসঙ্গে ছিলেন। তার ওপরেই তো দেশের নিরাপত্তার দায়িত্ব। তাঁকে কেন দিল্লি হিংসা নিয়ে কিছু জিজ্ঞাসা করলেন না। এখন বেরিয়ে এসে জনগণকে ভুল বোঝানোর চেষ্টা করছেন মমতা।’ দিলীপের কটাক্ষ, ‘যাকে যে কথাটা বললে কাজ হবে তাকে সেই কথা কখনো বলেন না মমতা।‘

মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যকে দায়িত্বজ্ঞানহীন বলে ভর্ৎসনা করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘একজন মুখ্যমন্ত্রী হয়ে দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো কথা বলছেন, এটা কি লোক ওনার কাছে আশা করে?’

এর পরই মমতার বাণে মমতাকেই বেঁধেন দিলীপ। বলেন, ‘CAA পাশ হওয়ার পর সব থেকে বেশি হিংসা হয়েছে, সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে। আমি কি ধরে নেব মমতা ব্যানার্জি ইচ্ছা করে এটা করিয়েছেন লোক দিয়ে? উনি এটা সাপোর্ট করেন? কারণ কারও বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেননি উনি।‘

সোমবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘দিল্লি হিংসা রাষ্ট্রের মদতে পরিকল্পিত গণহত্যা। পরে তার ওপর সাম্প্রদায়িক রূপ দেওয়া হয়েছে।‘ একাধিক ব্যক্তি তাঁকে একথা জানিয়েছেন বলে দাবি করেন মমতা। তবে তারা কারা, তা নিয়ে অবশ্য মুখ খোলেননি মুখ্যমন্ত্রী।


বন্ধ করুন