বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই দলের ‘শহিদ’-এর নাম ভুলে গেলেন দিলীপ ঘোষ
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতেই দলের ‘শহিদ’-এর নাম ভুলে গেলেন দিলীপ ঘোষ

  • গত বুধবার দাঁতনের চকইসমাইল গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় তৃণমূলি হামলায় গুরুতর আহত হন বিজেপি কর্মী পবন জানা। তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয় বলে অভিযোগ।

রাজ্যে বিরোধীদের ওপর শাসকদলের হিংসা নিয়ে সর্বক্ষণ সরব থাকেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বিশেষ করে বিজেপিকর্মীদের ওপর তৃণমূলের লাগাতার হামলা ও হত্যার অভিযোগে মুখর হতে শোনা যায় তাঁকে। এমনই এক সভায় দলের ‘শহিদ’-এর নাম ভুলে গেলেন তিনি। গত বৃহস্পতিবার কলকাতার হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছিল দাঁতনের বিজেপিকর্মী পবন জানার। সপ্তাহ ঘুরতে না ঘুরতে তাঁর নাম মনে করতে ভাষণের মধ্যেই অন্য নেতাদের সাহায্য নিতে হল দিলীপবাবুকে। 

বুধবার মেদিনীপুর ও হুগলি এলাকার জন্য ভার্চুয়াল জনসভার আয়োজন করেছিল বিজেপি। সেই সভায় অন্যতম বক্তা ছিলেন বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর সেখানেই ভাষণ দিতে গিয়ে বিপত্তি বাঁধান দিলীপবাবু। নিজের দলের ‘শহিদ’-এর নাম ভুলে যান তিনি। 

গত বুধবার দাঁতনের চকইসমাইল গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় তৃণমূলি হামলায় গুরুতর আহত হন বিজেপি কর্মী পবন জানা। তাঁকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয় বলে অভিযোগ। বৃহস্পতিবার কলকাতার এক হাসপাতালে মৃত্যু হয় পবনবাবুর।  এদিনের সভায় সেকথা বলতে গিয়ে দিলীপবাবু পবনের নামই ভুলে বসেন। 

দিলীপবাবু বলেন, ‘সম্প্রতি দাঁতনে আমাদের এক কর্মী খুন হয়েছেন। কী যেন নামটা?’ এর পর মঞ্চ থেকে তাঁকে পবন জানার নাম মনে করিয়ে দেন কেউ। তার পর ফের বক্তব্য শুরু করেন দিলীপবাবু। বলেন, ‘পবন জানাকে তলোয়ার দিয়ে ৩ বার কোপানো হয়েছে।’

সঙ্গে দিলীপবাবুর দাবি, ‘পবন জানার মৃত্যুতে দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার করছে না পুলিশ। বদলে দলীয় কর্মীকে শ্রদ্ধা জানাতে যাওয়ায় আমার বিরুদ্ধে মামলা করেছে। তাতে আরও ৭৫ জনের নাম দিয়েছে।’

 

বন্ধ করুন