ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

সব জায়গায় মমতাকে দিদিগিরি করতে দিতে হবে না কি? বললেন দিলীপ ঘোষ

  • তিনি বলেন, ‘২০০৯ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী থাকাকালীন তত্কালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে টালিগঞ্জ – নিউ গড়িয়া মেট্রোর উদ্বোধনে আমন্ত্রণ জানাননি।

ইস্ট – ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধন নিয়ে রাজ্য সরাকারের ক্ষোভকে ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি বললেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এদিন সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘২০০৯ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রেলমন্ত্রী থাকাকালীন তত্কালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যকে টালিগঞ্জ – নিউ গড়িয়া মেট্রোর উদ্বোধনে আমন্ত্রণ জানাননি। আজ সেই ইতিহাসের পুরনাবৃত্তি হল।’

দিলীপবাবু বলেন, ‘আজ ওর অভিযোগ করার দিন নয়, আত্মসমীক্ষার দিন। ২০০৯ সালে উনি রেলমন্ত্রী থাকাকালীন মেট্রোর উদ্বোধনে বুদ্ধবাবুকে ডাকেননি।’ আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়িয়ে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে সৌজন্যের কথা মানায় না। কোনও সরকারি কমিটিতে উনি বিরোধীদের ডাকেন না। নিজের ইচ্ছা মতো সার্কিট বেঞ্চ, ফ্লাইওভার উদ্বোধন করেন।’

দিলীপ ঘোষ জানান, ‘নিয়ম মেনে ইস্ট – ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনে স্থানীয় বিধায়ক, সাংসদ ও পুরসভার চেয়ারম্যানকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সব জায়গায় দিদিগিরি করতে দিতে হবে না কি?’

বলে রাখি, বৃহস্পতিবার ইস্ট – ওয়েস্ট মেট্রোর উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ না জানানোর অভিযোগ করে রাজ্য সরকার। এই অভিযোগে অনুষ্ঠান বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন শাসকদলের প্রতিনিধিরা। যদিও বৃহস্পতিবার KMRCL-এর তরফে জানানো হয়েছে। রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েলের নির্দেশে বুধবার সশরীরে নবান্নে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানিয়ে এসেছেন সংস্থার এক কর্তা।


বন্ধ করুন