বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ভবানীপুরে শেষ বেলায় চরম উত্তেজনা, বন্দুক উঁচিয়ে হুঁশিয়ারি দিলীপের দেহরক্ষীর
বন্দুক তাক করে আছেন দিলীপ ঘোষের দেহরক্ষী
বন্দুক তাক করে আছেন দিলীপ ঘোষের দেহরক্ষী

ভবানীপুরে শেষ বেলায় চরম উত্তেজনা, বন্দুক উঁচিয়ে হুঁশিয়ারি দিলীপের দেহরক্ষীর

  • শেষ বেলায় দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচারে ঝড় তুলতে গিয়ে বাধার মুখে পড়েন দিলীপ ঘোষ।

ভবানীপুর উপনির্বাচনের প্রচারের আজ শেষদিন। শেষ বেলায় দলীয় প্রার্থীর হয়ে প্রচারে ঝড় তুলতে এদিন ভবানীপুরে যান দিলীপ ঘোষ। বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতির প্রচার ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। এদিন ভবানীপুরে বিজেপির প্রচারে দিলীপ ঘোষকে হেনস্থার অভিযোগ ওঠে। বিজেপি কর্মীদেরও মারধর করা হয়। তৃণমূলের দিকে অভিযোগ উঠেছে। বিক্ষোভের মধ্যে দিলীপ ঘোষকে কোনও প্রকারে সরিয়ে নিয়ে যায় তাঁর নিরাপত্তারক্ষীরা। 

এদিন বিজেপি প্রার্থী প্রিয়ঙ্কা টিবরেওয়ালের হয়ে প্রচারে করতে ভবানীপুরে নামেন দিলীপ ঘোষ। সেখানে তাঁকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখানো হয়। দুই পক্ষের সংঘর্ষে এক বিজেপি কর্মীর মাথা ফাটে বলেও অভিযোগ। এই পরিস্থিতি সামাল দিতে বন্দুক উঁচিয়ে হুঁশিয়ারি দেন দিলীপ ঘোষের এক দেহরক্ষী।

এদিন যদুবাবুর বাজারে লিফলেট বিলি করতে গেলে হঠাৎ দিলীপ ঘোষকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা। দিলীপ ঘোষকে রীতিমতো ধাক্কা দেওয়া হয়। স্লোগান ওঠে 'জয় বাংলা'। পাল্টা 'জয় শ্রীরাম' স্লোগান দেন দিলীপ ঘোষ। সেই সময় দিলীপ ঘোষের এক নিরাপত্তারক্ষীকে বিক্ষোভকারীদের দিকে বন্দুক তাক করতে দেখা যায়।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে দিলীপ ঘোষ বলেন, 'কোথাও সুরক্ষা নেই। মেরে মাথা ফাটিয়ে দিচ্ছে। নির্বাচন কমিশনকে সব জানাব। কিন্তু প্রচার না করতে দিলে মানুষ ভোট দেবে কী করে।' এদিকে দিলীপের পাশাপাশি এদিন প্রচার করতে গিয়ে বাধার মুখে পড়েন ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিং, বিজেপির নবনিযুক্ত রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদাররাও।

 

 

বন্ধ করুন