বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কেউ বিদায় নেবে না, করে খাওয়ার জায়গা তো, সমীর পাঁজাকে কটাক্ষ দিলীপের

কেউ বিদায় নেবে না, করে খাওয়ার জায়গা তো, সমীর পাঁজাকে কটাক্ষ দিলীপের

দিলীপ ঘোষ (HT_PRINT)

তৃণমূলের অন্দরের এহেন মান অভিমানকে কটাক্ষ করে দিলীপ ঘোষ রবিবার সকালে বলেন, ‘আমি জানিনা এসব কি চলছে? কেউ বিদায় নেবে না…

ফেসবুকে পোস্ট করে তৃণমূল বিধায়কের দল ছাড়ার জল্পনাকে কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। রবিবার সকালে ভুবনেশ্বর উড়ে যাওয়ার আগে দমদম বিমানবন্দরে তিনি বলেন, ‘কেউ বিদায় নেবে না। করে খাওয়ার জায়গা তো।’

শুক্রবার সকালে ফেসবুকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি পোস্ট করে উলুবেড়িয়ার তৃণমূল বিধায়ক সমীর পাঁজা লেখেন, ‘ হ্যাঁ , আমার এই মহাননেত্রী আছেন বলেই দলটা ছেড়ে যাইনি। কারণ কত ঝড়, ঝাপটা পেরিয়ে নানা ইতিহাসের সাক্ষী হিসেবে দাঁড়িয়ে থেকে ৩৮ টা বছর মহান নেত্রীর সঙ্গে একজন সৈনিক হিসেবে কাজ করতে করতে, এখন বড়ই বেমানান লাগছে নিজেকে। কারণ আজ অবধি মিথ্যে নাটক করে দল নের্তৃত্বের কাছে ভালো সেজে, মেকি লিডার হতে চাই না আমি। না কবেই টাটা বাই বাই করে দল ছেড়ে চলে যেতাম আমি। আমার মতো অবিভক্ত যুব কংগ্রেসের আমল থেকে যারা আছে, তাঁরা আদৌ কোনও গুরুত্ব পাচ্ছে কি বর্তমানে ? তাই আর কি, আমার যাবার সময় হল, দাও বিদায়।' ’

সমীর পাঁজাকে সমর্থন করে রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায় বলেন, ‘সামীর পাঁজা দলের সম্পদ৷ তার হতাশা দুঃখজনক, ও অন্ধের মতো দল করে৷ দলকেও পুরনো কর্মীদের মর্যাদা দেওয়ার বিষয়ে ভাবতে হবে৷ সমীর ছাড়া হাওড়ায় দল অচল৷’

তৃণমূলের অন্দরের এহেন মান অভিমানকে কটাক্ষ করে দিলীপ ঘোষ রবিবার সকালে বলেন, ‘আমি জানিনা এসব কি চলছে? কেউ বিদায় নেবে না। করে খাওয়ার জায়গা তো। এটায় বিদায় নিলে চলবে কী করে? মাঝেমধ্যে একটুখানি বিবাগী হয়ে মন খারাপের স্টেটমেন্ট দিয়ে প্রচারে আসার চেষ্টা বাকি আর কিছু না।’

বন্ধ করুন