বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > অনেকে বলতে পারছেন না, উনি বলেছেন, মদনের পাশে দাঁড়ালেন দিলীপ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

অনেকে বলতে পারছেন না, উনি বলেছেন, মদনের পাশে দাঁড়ালেন দিলীপ

  • এদিন মদনবাবুর বক্তব্যকে সমর্থন করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘উনি ঠিকই বলেছেন। অনেকে বলতে পারছেন না, উনি বলেছেন। কে কী পাঞ্জাবি পরবে, কে কী খাবে, রাতে খাবার পর ওষুধ খাবে কি না এসবও ঠিক করে দেওয়া হচ্ছে।

দলের বিরুদ্ধে ইঙ্গিতবাহী মন্তব্য করে পিকের বিরোধিতা করায় তৃণমূল নেতা মদন মিত্রের পাশে দাঁড়ালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মঙ্গলবার সাংবাদিকদের তিনি বলেন, তৃণমূল নেতারা কী পরবেন, কী খাবেন তাও ঠিক করে দিচ্ছেন পিকে। এতে বাঙালির অপমান না হলে আর কীসে হবে?

সোমবার একাধিক সংবাদমাধ্যমকে সাক্ষাৎকারে মদন মিত্র বলেন, মানুষের মন জিততে কী করতে হয় সেই শিক্ষা প্রশান্ত কিশোরের কাছ থেকে নেব না। সঙ্গে দলের নেতৃত্বের একাংশকে কটাক্ষ করে, ‘ক্যাপসুল লিফট’ ও হেলিকপ্টারে মালদা ভ্রমণের প্রসঙ্গ তোলেন তিনি। শুভেন্দুকেও অহংকারী না হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি। বলেন, ফাইনাল প্যাক আপ করার সময় হয়েছে। 

এদিন মদনবাবুর বক্তব্যকে সমর্থন করে দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘উনি ঠিকই বলেছেন। অনেকে বলতে পারছেন না, উনি বলেছেন। কে কী পাঞ্জাবি পরবে, কে কী খাবে, রাতে খাবার পর ওষুধ খাবে কি না এসবও ঠিক করে দেওয়া হচ্ছে। গতকাল বলেছিলাম, ভিতর থেকে আওয়াজ উঠছে, পিকে হঠাও, টিএমসি বাঁচাও। সেই রাস্তাতেই মদনবাবু বলেছেন। 

দিলীপ ঘোষের প্রশ্ন, ‘এটাতে যদি বাঙালির অপমান না হয় তাহলে কীসে বাঙালির অপমান হবে জানি না। যারা বাঙালি বাঙালি করছেন, তাঁরা বাঙালির খাওয়া-পরাটাও ঠিক করে দিচ্ছেন, এই ধরনের রাজনীতি পশ্চিমবঙ্গে আগে ছিল না’।

তবে মদনবাবু বিজেপিতে যোগদান করবেন কি না তা নিয়ে এদিন কিছু বলেননি দিলীপ ঘোষ। তবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একদা আস্থাভাজন এই নেতা বেসুরো হওয়ায় তৃণমূলের অন্দরেও সেই জল্পনা শুরু হয়েছে। 

 

বন্ধ করুন