বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সাধারণ মানুষের মনের কথা বলেছেন রাজ্যপাল, ধনখড়ের সমর্থনে বললেন দিলীপ
ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

সাধারণ মানুষের মনের কথা বলেছেন রাজ্যপাল, ধনখড়ের সমর্থনে বললেন দিলীপ

  • দিলীপের প্রশ্ন, ‘যদি আইনশৃঙ্খলা সমস্যা হয় বা প্রশাসন ভেঙে পড়ে, সরকারি আধিকারিকরা অবৈধ কাজে জড়িয়ে পড়েন তাহলেও কি রাজ্যপাল রাষ্ট্রপতি শাসনের কথা বলবেন না?

দিল্লিতে অমিত শাহের সঙ্গে সাক্ষাতের পর পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের করা মন্তব্যের পাশে দাঁড়ালেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার শাহের সঙ্গে সাক্ষাৎ সেরে পশ্চিমবঙ্গের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে ধনখড় বলেন, পুলিশকে দিয়ে প্রশাসন চালাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। সঙ্গে তাঁর দাবি ছিল, এই পরিস্থিতিতে পশ্চিমবঙ্গে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়।

এদিন ধনখড়ের মন্তব্যকে সমর্থন করে দিলীপবাবু বলেন, ‘আজ যদি রাজ্যপাল এটা বলে থাকেন তাহলে আমি বলব যে এটা অতিশয়উক্তি হয়নি। উনি এখানকার সাধারণ মানুষের মনের কথা বলেছেন। পরিস্থিতি যে দিকে এগোচ্ছে হয়তো আরও খারাপ হবে। যেটা সত্যি সত্যি পশ্চিমবঙ্গের বাইরের লোকেদের জানার দরকার আছে। পশ্চিমবঙ্গে যে সরকার চলছে তাদের নীতি হচ্ছে হিংসা। বিরোধীদের ধ্বংস করে রাজনীতি করতে চাইছে। সরকারি আধিকারিক ও পুলিশকর্মীরা সরকারের ইচ্ছায় মদত জুগিয়ে এটাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে’। 

দিলীপের প্রশ্ন, ‘যদি আইনশৃঙ্খলা সমস্যা হয় বা প্রশাসন ভেঙে পড়ে, সরকারি আধিকারিকরা অবৈধ কাজে জড়িয়ে পড়েন তাহলেও কি রাজ্যপাল রাষ্ট্রপতি শাসনের কথা বলবেন না? এর পরও রাজ্যপাল চুপ করে থাকলে আমি বলব তিনি তার দায়িত্ব থেকে বিচ্যূত হচ্ছেন’।

পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপালের দায়িত্বে আসার পর থেকে রাজ্যপালের সঙ্গে রাজ্য সরকারের সংঘাত চরমে পৌঁছেছে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী সংবিধান মেনে কাজ করছেন না বলেও মন্তব্য করেছেন রাজ্যপাল। বিজেপির দাবি, পশ্চিমবঙ্গে একমাত্র রাজ্যপালের বিরুদ্ধেই মামলা করার ক্ষমতা নেই সরকারের। তাই মানুষের কথা তুলে ধরলেও রাজ্যপালকে থামাতে পারছে না তৃণমূল। 

 

বন্ধ করুন