বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > রেশনে বিনামূল্যে চাল দেওয়া যায় তো এতদিন কেন দেননি উনি? মমতাকে প্রশ্ন দিলীপের
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

রেশনে বিনামূল্যে চাল দেওয়া যায় তো এতদিন কেন দেননি উনি? মমতাকে প্রশ্ন দিলীপের

  • তিনি বলেন, ‘কারণ তাদের খেতে দিতে হবে, কাজ দিতে হবে, চিকিৎসা দিতে হবে। মানুষ হাঁটতে হাঁটতে ফিরেছে। রাস্তায় অসুস্থ হয়ে মারা গিয়েছে।

‘রেশনে বিনামূল্যে চাল দেওয়া যায় তো এতদিন কেন দেননি উনি? পশ্চিমবঙ্গের বাইরে ভারতবর্ষে কোথায় ২ টাকা কিলো দরে চাল আর পোকায় ধরা গম খেতে হয়?’ ২১ জুলাইয়ের সমাবেশ থেকে তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ক্ষমতায় ফিরলে আজীবন বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার ঘোষণাকে এভাবেই কটাক্ষ করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

এদিন দিলীপবাবু বলেন, ‘উনি পশ্চিমবঙ্গের মানুষকে গরিব আর ভিখারি করে রেখেছেন। তাই পশ্চিমবঙ্গের লক্ষ লক্ষ ছেলেকে ঘর বাড়ি ছেড়ে কাজের খোঁজে পশ্চিম ভারতে যেতে হচ্ছে। বুড়ো বাবা-মা, স্ত্রী-সন্তানকে ছেড়ে বাইরে থাকতে হচ্ছে।‘ 

দিলীপবাবুর দাবি, ‘এই সংকটের সময় প্রধানমন্ত্রী চাইছিলেন ছেলেরা বাড়ি ফিরে পরিবারের পাশে দাঁড়াক। পরিজনরা তাদের মুখটা দেখুক। সেই অনুমতি আপনি দেননি। সরকার ট্রেন দিয়েছিল, আপনি ট্রেন ঢুকতে দেননি।‘ 

তিনি বলেন, ‘কারণ তাদের খেতে দিতে হবে, কাজ দিতে হবে, চিকিৎসা দিতে হবে। মানুষ হাঁটতে হাঁটতে ফিরেছে। রাস্তায় অসুস্থ হয়ে মারা গিয়েছে। কতজন এসেছে তার খবর নেই আপনার কাছে।‘ 

মমতাকে দিলীপের কটাক্ষ, ‘আপনার কাছে চাকরি নেই, রেশন নেই। যে রেশনটা পাঠিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী সেটাই তো পৌঁছে দিতে পারেননি। রাস্তায় লুঠ হয়ে গিয়েছে।‘

বলে রাখি, মঙ্গলবার ২১ জুলাইয়ের ভার্চুয়াল সমাবেশে ভাষণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন ২০২১ সালে ক্ষমতায় ফিরলে রাজ্যবাসীকে আজীবন বিনামূল্যে রেশন দেওয়ার কথা বিবেচনা করবে তাঁর সরকার। তিনি বলেন, আমার রোজগারের অন্য জায়গা রয়েছে। সেখান থেকে টাকা এনে গরিবের মধ্যে ভাগ করে দেব আমি। 

 

বন্ধ করুন