বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Calcutta High court: শিক্ষা সচিবকে হাজিরা দিতে হবে আদালতে, সিঙ্গেল বেঞ্চের রায় বহাল ডিভিশন বেঞ্চে

Calcutta High court: শিক্ষা সচিবকে হাজিরা দিতে হবে আদালতে, সিঙ্গেল বেঞ্চের রায় বহাল ডিভিশন বেঞ্চে

কলকাতা হাইকোর্ট। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)

বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তীর নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশকে রাজ্যের চ্যালেঞ্জ প্রসঙ্গে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। ডিভিশন বেঞ্চ এদিন পর্যবেক্ষণে জানায়, ‘রাজ্যের শিক্ষা সচিব একজন দায়িত্ববান অফিসার। তাঁর কর্তব্য হল আদালতকে সাহায্য করা।’ 

অতিরিক্ত শূন্যপদে অবৈধদের নিয়োগের আবেদন সংক্রান্ত মামলায় কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে ধাক্কা খেল রাজ্য। এই মামলায় শিক্ষা সচিব মনীষ জৈনকে আদালতে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছিলেন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। সেই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে ডিভিশন বেঞ্চে গিয়েছিল রাজ্য। আজ বৃহস্পতিবার ডিভিশন বেঞ্চ রাজ্যের আবেদন খারিজ করে দিয়েছে।

এদিন বিচারপতি তপব্রত চক্রবর্তীর নেতৃত্বাধীন ডিভিশন বেঞ্চ সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশকে রাজ্যের চ্যালেঞ্জ প্রসঙ্গে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। ডিভিশন বেঞ্চ এদিন পর্যবেক্ষণে জানায়, ‘রাজ্যের শিক্ষা সচিব একজন দায়িত্ববান অফিসার। তাঁর কর্তব্য হল আদালতকে সাহায্য করা। কিন্তু তা না করে রাজ্য কেন আদালতের নির্দেশের বিরোধিতা করছে তা কিছুই বোঝা যাচ্ছে না।’ এই পর্যবেক্ষণ করে সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশকে বহাল রেখেছে ডিভিশন বেঞ্চ। এর পাশাপাশি সিবিআই তদন্ত নিয়ে ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়েছে, আদালত যখন মনে করেছে সিবিআই তদন্তের প্রয়োজন রয়েছে তাহলে নিশ্চয় সেখানে তদন্তের প্রয়োজন রয়েছে। সিঙ্গেল বেঞ্চের সিবিআই তদন্তের নির্দেশকেও বহাল রাখে ডিভিশন বেঞ্চ।

প্রসঙ্গত, অযোগ্যদের অতিরিক্ত শূন্য পদে নিয়োগ সংক্রান্ত মামলায় বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়ের সিঙ্গেল বেঞ্চ এসএসসির কাছে জানতে চেয়েছিল কার নির্দেশে এগুলি হয়েছে। এরপর এসএসসি জানায়, এটি তাদের সুপারিশে হয়নি। তারপরেই বিচারপতি শিক্ষা সচিবকে ডেকে পাঠান বিচারপতি। সেই হাজিরার বিরোধিতা করে ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করেছিল রাজ্য। সরকারের বক্তব্য ছিল, আদালত সরাসরি শিক্ষা সচিবকে এভাবে ডাকতে পারে না। সেই যুক্তি খাড়া করে ডিভিশন বেঞ্চের দ্বারস্থ হয়ে রাজ্য। আজ তাঁর হাজিরার কথা ছিল। তবে ডিভিশন বেঞ্চে মামলাটি চলায় আজ তিনি হাজিরা দেননি। আগামীকাল শুক্রবার বিচারপতি গঙ্গোপাধ্যায়ের এজলাসে তাঁকে হাজিরা দিতে হবে।

বন্ধ করুন