বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > প্রবাসী শ্রমিকরা রেল লাইনে শুয়ে থাকলে কি কেন্দ্রের দোষ? প্রশ্ন দিলীপের
ফাইল ছবি।
ফাইল ছবি।

প্রবাসী শ্রমিকরা রেল লাইনে শুয়ে থাকলে কি কেন্দ্রের দোষ? প্রশ্ন দিলীপের

  • একই সঙ্গে শ্রমিকদের এই পরিণতির জন্য রাজ্য সরকারকে দায়ী করেছেন তিনি।

মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত পরিযায়ী শ্রমিকদের সম্পর্কে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্য নিয়ে শুরু হল বিতর্ক। শুক্রবার এই নিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘শ্রমিকরা লাইনে শুয়ে থাকলে তার দায় কেন্দ্রের নয়।’ প্রশ্ন হল, শোকের এই মুহূর্তে এহেন মন্তব্য কতটা মানবিক?

শুক্রবার ভোরে মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদের কাছে রেল লাইনে বিশ্রাম নেওয়ার সময় মালগাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছে ১৬ জন প্রবাসী শ্রমিকের। মহারাষ্ট্র থেকে রেল লাইন ধরে হেঁটে মধ্যপ্রদেশে যাচ্ছিলেন তাঁরা। পথে ক্লান্ত হয়ে পড়লে রেল লাইনেই ঘুমিয়ে পড়েন ওই শ্রমিকরা। তখনই ঘটে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। 

শুক্রবার এই নিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘শ্রমিকরা যদি রেল লাইনে শুয়ে থাকেন তাহলে কি তা কেন্দ্রের দোষ?’ একই সঙ্গে শ্রমিকদের এই পরিণতির জন্য রাজ্য সরকারকে দায়ী করেছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘প্রবাসী শ্রমিকদের ফেরানোর দায়িত্ব রাজ্য সরকারের। তারা দায়িত্ব পালন করছে না। তাই প্রাণ হাতে নিয়ে ফিরতে হচ্ছে শ্রমিকদের।’ বলে রাখি, মার্চে পালাবাদলের পর মধ্যপ্রদেশের ক্ষমতায় এখন শিবরাজ সিং চৌহানের নেতৃত্বাধীন শিবরাজ সিং চৌহান সরকার। 

মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত পরিযায়ী শ্রমিকদের সম্পর্কে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্য নিয়ে শুরু হল বিতর্ক। শুক্রবার এই নিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘শ্রমিকরা লাইনে শুয়ে থাকলে তার দায় কেন্দ্রের নয়।’ প্রশ্ন হল, শোকের এই মুহূর্তে এহেন মন্তব্য কতটা মানবিক?

শুক্রবার ভোরে মহারাষ্ট্রের ঔরঙ্গাবাদের কাছে রেল লাইনে বিশ্রাম নেওয়ার সময় মালগাড়ির ধাক্কায় মৃত্যু হয়েছে ১৬ জন প্রবাসী শ্রমিকের। মহারাষ্ট্র থেকে রেল লাইন ধরে হেঁটে মধ্যপ্রদেশে যাচ্ছিলেন তাঁরা। পথে ক্লান্ত হয়ে পড়লে রেল লাইনেই ঘুমিয়ে পড়েন ওই শ্রমিকরা। তখনই ঘটে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা। 

শুক্রবার এই নিয়ে দিলীপবাবু বলেন, ‘শ্রমিকরা যদি রেল লাইনে শুয়ে থাকেন তাহলে কি তা কেন্দ্রের দোষ?’ একই সঙ্গে শ্রমিকদের এই পরিণতির জন্য রাজ্য সরকারকে দায়ী করেছেন তিনি। তিনি বলেন, ‘প্রবাসী শ্রমিকদের ফেরানোর দায়িত্ব রাজ্য সরকারের। তারা দায়িত্ব পালন করছে না। তাই প্রাণ হাতে নিয়ে ফিরতে হচ্ছে শ্রমিকদের।’ বলে রাখি, মার্চে পালাবাদলের পর মধ্যপ্রদেশের ক্ষমতায় এখন শিবরাজ সিং চৌহানের নেতৃত্বাধীন শিবরাজ সিং চৌহান সরকার। 

 

 

বন্ধ করুন