বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > অনলাইনে খাবার অর্ডার করে প্রতারণার শিকার দমদমের তরুণী, গায়েব হল ২৫ হাজার টাকা
প্রতারণার শিকার শতরূপা দাস। 
প্রতারণার শিকার শতরূপা দাস। 

অনলাইনে খাবার অর্ডার করে প্রতারণার শিকার দমদমের তরুণী, গায়েব হল ২৫ হাজার টাকা

  • শতরূপার অভিযোগ, এই প্রতারণার সঙ্গে যুক্ত সুইগির কর্মীরাই। তাঁদের কাছ থেকে তথ্য না পেলে প্রতারক তাঁর নম্বর জানল কী করে? প্রতারক হিন্দিতে কথা বলছিল বলে জানিয়েছেন তিনি।

অ্যাপের মাধ্যমে খাবার অর্ডার করে প্রতারণার শিকার হলেন দমদমের বাসিন্দা এক তরুণী। শতরূপা দাস নামে ওই তরুণী পেশায় মডেল। অভিযোগ, তাঁর টাকা ফেরত দেওয়ার নাম করে ২৫,০০০ টাকা গায়েব করে দেওয়া হয়েছে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে। ইতিমধ্যে পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেছেন তিনি। এই ঘটনার সঙ্গে জামতাড়া গ্যাংয়ের সদস্যরা যুক্ত কি না খতিয়ে দেখছে পুলিশ। 

শতরূপা জানিয়েছেন, গত ১১ জুন একটি খাবার ডেলিভারির অ্যাপে কিছু খাবারের অর্ডার দিয়ে অপেক্ষা করছিলেন তিনি। বেশ কিছুক্ষণ কেটে যাওয়ার পরও খাবার এসে না পৌঁছনোয় ডেলিভারি ম্যানকে ফোন করেন তিনি। ডেলিভারি ম্যান জানান, তাঁর পক্ষে এখন খাবার পৌঁছনো সম্ভব নয়। তাই শতরূপা যেন অর্ডারটি ক্যান্সেল করে দেন। তাঁর পরিশোধ করা ১৩০ টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে। 

এর কিছুক্ষণ পরই শতরূপার কাছে আসে একটি ফোন। ফোনের অপর প্রান্তের ব্যক্তি বলেন, তাঁর টাকা ফেরানোর জন্য ‘Any Desk’ নামে একটি অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। সেই অ্যাপ ডাউনলোড করার পর গুগল পে-তে তাঁকে কিছু জিনিস টাইপ করতে বলা হয়। এর পরই প্রায় ২২,০০০ টাকা গায়েব হয়ে যায় তাঁর ২টি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থেকে। 

শতরূপার অভিযোগ, এই প্রতারণার সঙ্গে যুক্ত সুইগির কর্মীরাই। তাঁদের কাছ থেকে তথ্য না পেলে প্রতারক তাঁর নম্বর জানল কী করে? প্রতারক হিন্দিতে কথা বলছিল বলে জানিয়েছেন তিনি। টাকা কেন কাটা হল জানতে চাইলে তাঁকে অকথ্য গালিগালাজ করা হয় বলে অভিযোগ। 

সোমবার দমদম থানা ও বারাকপুর কমিশনারেটের সাইবার ক্রাইম থানায় এই নিয়ে অভিযোগ জানান শতরূপা। তবে পুলিশ তাঁর সঙ্গে সহযোগিতা করছে না বলে অভিযোগ জানিয়েছেন তিনি।

 

বন্ধ করুন