বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'ওয়ার্নিং দিয়ে গেলাম’‌,পুজোর আগে রোস্তোরাঁয় খাদ্যের গুণগত মান যাচাইয়ে তৎপরতা
'ওয়ার্নিং দিয়ে গেলাম’‌,পুজোর আগে রোস্তোরাঁয় খাদ্যের গুণগত মান যাচাইয়ে তৎপরতা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
'ওয়ার্নিং দিয়ে গেলাম’‌,পুজোর আগে রোস্তোরাঁয় খাদ্যের গুণগত মান যাচাইয়ে তৎপরতা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

'ওয়ার্নিং দিয়ে গেলাম’‌,পুজোর আগে রোস্তোরাঁয় খাদ্যের গুণগত মান যাচাইয়ে তৎপরতা

শুধু কলকাতা শহরের বুকেই নয়, কলকাতার আশেপাশে বিভিন্ন জেলাতেও খাবারের গুণমান যাচাই করে দেখছেন খাদ্য সুরক্ষা দফতরের আধিকারিকরা।

পুজোর সময়ে রেস্তোরাঁয় ভিড় হবেই। সেই রেস্তোরাঁয় গিয়ে মানুষ যাতে ভালো মানের খাবার পায়, সে বিষয়ে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিল কলকাতা পুরনিগম। পুরনিগমের খাদ্য সুরক্ষা দফতরের আধিকারিকদের নিয়ে আচমকাই রেস্তোরাঁগুলিতে পরিদর্শনে আসেন প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য অতীন ঘোষ। খাদ্যের গুণগত মান নিয়ে এক রেস্তোরাঁর মালিককে বকুনিও দেন।

প্রতি বছরের মতো এবারও পুজোর আগে রেস্তোঁরাগুলি পরিদর্শন করে দেখেছেন পুরনিগমের খাদ্য সুরক্ষা দফতরের আধিকারিকরা। শুক্রবার শহরের বিভিন্ন রেস্তোরাঁয় ভ্রাম্যমাণ পরীক্ষাগার নিয়ে গিয়ে খাদ্যের গুণমান যাচাই করা হয়। কোথাও একেবারে হেঁসেলে ঢুকে খাদ্যের গুণমান যাচাই করা হয়, আবার কোথাও রেস্তোরাঁর ফ্রিজে মজুত খাদ্য সামগ্রী তাজা আছে কিনা, তাও পরীক্ষা করে দেখা হয়। এক রেস্তোরাঁয় ঢুকে খাবারের গুণগত মান নিয়ে রীতিমতো অসন্তোষও প্রকাশ করেন প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য। অতীনবাবু রেস্তোরাঁর মালিককে জিজ্ঞাসা করেন, ‘‌ফ্রিজে পানীয় কবে ঢুকিয়ে রেখেছেন?‌ প্যাকেটে কিছু লেখা নেই কেন?‌ ওয়ার্নিং দিয়ে গেলাম।’‌ আরও একটা জায়গায় খাবারের উপাদানের গুণমান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে অতীন জানান, এখানে বিস্কুটের গুঁড়ো খারাপ ছিল। প্রয়োজনে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শুধু কলকাতা শহরের বুকেই নয়, কলকাতার আশেপাশে বিভিন্ন জেলাতেও খাবারের গুণমান যাচাই করে দেখছেন খাদ্য সুরক্ষা দফতরের আধিকারিকরা। খাদ্য সুরক্ষা দফতরের আধিকারিকরা জানান, আগামীদিনে কলকাতার পাশাপাশি বিভিন্ন জেলাতেও এই ধরনের পরীক্ষা চালানো হবে। পাশাপাশি বিভিন্ন ক্যাম্প করে খাদ্য সুরক্ষা বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করেন আধিকারিকরা।

 

বন্ধ করুন