বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Durga Puja 2022 Weather: আসছে ঘূর্ণাবর্ত, দুর্গাপুজোর সপ্তমী থেকে নামতে পারে বৃষ্টি, সঙ্গে দমকা হাওয়া

Durga Puja 2022 Weather: আসছে ঘূর্ণাবর্ত, দুর্গাপুজোর সপ্তমী থেকে নামতে পারে বৃষ্টি, সঙ্গে দমকা হাওয়া

এবার পুজো মাটি করতে পারে বেয়াড়া বৃষ্টি।

পূর্বাভাস অনুসারে, সপ্তমীর সকালে দক্ষিণ চিন সাগর থেকে বঙ্গোপসাগরে প্রবেশ করতে পারে একটি ঘূর্ণাবর্ত। ক্রমশ উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে অষ্টমীর বিকেলে ভূভাগে প্রবেশ করতে পারে সেটি।

বছর ঘুরে আরেকটা দুর্গাপুজোয় মেতে উঠতে তৈরি গোটা পশ্চিমবঙ্গ। মহালয়ার সকালে সর্বত্রই প্রস্তুতি প্রায় সারা। সঙ্গে সবার মনে ঘুরপাক খাচ্ছে একটাই প্রশ্ন, এবছরও কি দুর্গাপুজোর আনন্দে বাধা দিতে পারে বৃষ্টি? পূর্বাভাস বলছে, এবারের পুজোতেও বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কপাল খারাপ থাকলে সঙ্গে বইতে পারে দমকা হাওয়াও।

২ বছর পর বিধিনিষেধহীন দুর্গাপুজোর অপেক্ষায় রয়েছে বাঙালি। আর তার আগে হাওয়া অফিস থেকে এল আশঙ্কার খবর। পূর্বাভাস বলছে, আসন্ন দুর্গাপুজো ২০২২-এর বেশিরভাগটাই ভণ্ডুল করে দিতে পারে বৃষ্টি। পূর্বাভাস মিললে ষষ্ঠীর পর থেকেই শুরু হতে পারে দুর্যোগ। আকাশ ঢাকতে পারে কালো মেঘে।

পূর্বাভাস অনুসারে, সপ্তমীর সকালে দক্ষিণ চিন সাগর থেকে বঙ্গোপসাগরে প্রবেশ করতে পারে একটি ঘূর্ণাবর্ত। ক্রমশ উত্তর পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে অষ্টমীর বিকেলে ভূভাগে প্রবেশ করতে পারে সেটি। পূর্বাভাস বলছে, সমুদ্রে পরিবেশ অনুকূল থাকলে নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে ঘূর্ণাবর্তটি। বাংলাদেশ থেকে ওড়িশার মধ্যে কোনও অংশ দিয়ে সেটি ভূভাগে প্রবেশ করতে পারে।

চেতলা অগ্রণী থেকে জেলার আড়াইশো পুজো ভার্চুয়ালি উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী

আবহাওয়াবিদ তথা বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কা জানিয়েছেন, ঘূর্ণাবর্তটি নিম্নচাপে পরিণত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে সেটি কোথা দিয়ে ভূভাগে প্রবেশ করে তার ওপর নির্ভর করবে দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ। ঘূর্ণাবর্তটি ওড়িশা দিয়ে ভূভাগে প্রবেশ করলে দক্ষিণবঙ্গে সপ্তমী ও অষ্টমী বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে। কোথাও কোথাও দু’এক পশলা ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু ঘূর্ণাবর্তটি পশ্চিমবঙ্গ বা বাংলাদেশ উপকূল দিয়ে ভূভাগে প্রবেশ করলে সপ্তমী ও অষ্টমী মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা থাকবে। সঙ্গে বইতে পারে দমকা হাওয়া। যার জেরে প্যান্ডেল বা আলোকসজ্জার গেট ভেঙে পড়ার আশঙ্কা থাকবে। বিশেষ করে উপকূলবর্তী এলাকায় এই সম্ভাবনা বেশি। নবমী ও দশমী বৃষ্টির দাপট একটু কমবে। তবে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকবে দক্ষিণবঙ্গজুড়ে।

রবীন্দ্রবাবু জানিয়েছেন, তবে এই ঘূর্ণাবর্তের শক্তিশালী হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ, সপ্তমীর সকালে ঘূর্ণাবর্তটি যখন বঙ্গোপসাগরে প্রবেশ করবে তখন দক্ষিণ চিন সাগরের ওপর অবস্থান করবে আরেকটি শক্তিশালী ঘূর্ণাবর্ত। সেই ঘূর্ণাবর্তটি বেশ কিছুটা জলীয় বাস্প টেনে নিতে পারে। যার ফলে বঙ্গোপসাগরের ওপরে থাকা ঘূর্ণাবর্তটি সম্ভবত শক্তি সঞ্চয় করতে পারবে না।

তবে পুজোর আগে ষষ্ঠী পর্যন্ত আবহাওয়া মনোরম থাকবে বলেই পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে। আগামী বুধবার পর্যন্ত কয়েক জায়গায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হলেও তার পরে আবহাওয়া থাকবে শুষ্ক।

 

বন্ধ করুন