বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মমতার বাড়ির কাছে ফ্ল্যাট থেকে দম্পতির দেহ উদ্ধার, শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত
ভবানীপুরে স্নিফার ডগ। 

মমতার বাড়ির কাছে ফ্ল্যাট থেকে দম্পতির দেহ উদ্ধার, শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত

  • পুলিশ সূত্রে খবর, তাঁদের ফ্ল্যাটের ভিতরে আলমারি খোলা ছিল। দু'জনের শরীরেই ধারালো অস্ত্রের আঘাত পাওয়া গিয়েছে। তা থেকে প্রাথমিকভাবে অনুমান, লুঠপাটে বাধা দেওয়ায় খুন করা হয়ে থাকতে পারে।

হরিশ মুখার্জি রোডের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হল দম্পতির মৃতদেহ। প্রাথমিকভাবে একটি মহলের দাবি, মৃতদের শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত মিলেছে। ইতিমধ্যে ঘটনাস্থলে এসেছে কলকাতা পুলিশ। আনা হয়েছে স্নিফার ডগকে।

সোমবার সন্ধ্যার দিকে হরিশ মুখার্জি রোডের ফ্ল্যাট থেকে এক দম্পতির মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। যে ফ্ল্যাট মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাসভবনের একেবারেই কাছে অবস্থিত। একাংশের দাবি, তাঁদের ফ্ল্যাটের ভিতরে আলমারি খোলা ছিল। দু'জনের শরীরেই ধারালো অস্ত্রের আঘাত পাওয়া গিয়েছে। তা থেকে প্রাথমিকভাবে অনুমান, লুঠপাটে বাধা দেওয়ায় খুন করা হয়ে থাকতে পারে। যদিও বিষয়টি নিয়ে এখনও কলকাতা পুলিশের তরফে কিছু জানানো হয়নি।

মৃত গুজরাটি দম্পতির এক আত্মীয় জানিয়েছেন, তাঁদের তিন মেয়ে আছেন। দুই মেয়ের বিয়ে হয়ে গিয়েছে। একজনের বাড়ি ভবানীপুরেই। তিনি সকাল থেকে বাবা এবং মা'কে ফোনে পাচ্ছিলেন না। তারইমধ্যে সন্ধ্যা ছ'টা থেকে সাড়ে ছ'টা নাগাদ এক মেয়ে এসে দেখেন যে ফ্ল্যাটের দরজা খোলা। পড়ে আছে প্রৌঢ়ার দেহ। কিছুটা ভিতরে প্রৌঢ়ের দেহ পড়েছিল। পড়ে আছে খাবার।

আরও পড়ুন: মুর্শিদাবাদে নিজের ২ সন্তানকে খুনে অভিযুক্ত বাবা গ্রেফতার হল মুম্বই থেকে

তারইমধ্যে ঘটনাস্থলে এসেছেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম, স্থানীয় কাউন্সিলর কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কলকাতা পুলিশের কমিশনার বিনীত গোয়েল। ফিরহাদ বলেছেন, ‘পুলিশ তদন্ত করছেন। সম্ভবত কেউ ঢুকে গুলি করেছে। তবে সেটা নিশ্চিত নই। পুলিশকে তদন্ত করতে দিন। অপরাধী গ্রেফতার হবেই। অপরাধী পালাতে পারবে না।’ মমতার ভ্রাতৃবধূ কাজরী জানিয়েছেন, শরীরে ধারালো অস্ত্রের আঘাত পাওয়া গিয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে।

বন্ধ করুন