বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতা পুলিশের আধিকারিক সেজে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ৪
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

কলকাতা পুলিশের আধিকারিক সেজে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণা, গ্রেফতার ৪

  • প্রতারিতরা জানিয়েছেন, মাসুদ রানা নামে কলকাতা পুলিশের এক ভুয়ো DSP-র পরিচয়পত্র দেখায় প্রতারকরা। সঙ্গে তাঁদের দেখানো হয় কলকাতা পুলিশের উর্দি, বেল্ট ও টুপি। এসব দেখেই ৫ যুবক মোট ৩৫ লক্ষ টাকা দেন প্রতারকদের।

রাজ্যে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে গ্রেফতার আরও এক ভুয়ো পুলিশ আধিকারিকসহ ৪। বুধবার তাঁদের গ্রেফতার করে কলকাতা পুলিশের গুন্ডাদমন শাখা। পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনির কিছু যুবকের অভিযোগের ভিত্তিতে এই গ্রেফতারি বলে দাবি করা হয়েছে। ধৃতদের অন্যতম মাসুদ রানা নিজেকে কলকাতা পুলিশের DSP বলে পরিচয় দিতেন।

কলকাতা পুলিশের গুন্ডা দমন শাখা সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন কয়েক আগে পুলিশে চাকরি দেওয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগ দায়ের করেন পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনির ৫ যুবক। তাঁদের দাবি, কলকাতা পুলিশের হোমগার্ডে চাকরি দেওয়ার নাম করে ৩৫ লক্ষ টাকা নেন ৪ ব্যক্তি। কিন্তু চাকরি মেলেনি।

প্রতারিতরা জানিয়েছেন, মাসুদ রানা নামে কলকাতা পুলিশের এক ভুয়ো DSP-র পরিচয়পত্র দেখায় প্রতারকরা। সঙ্গে তাঁদের দেখানো হয় কলকাতা পুলিশের উর্দি, বেল্ট ও টুপি। এসব দেখেই ৫ যুবক মোট ৩৫ লক্ষ টাকা দেন প্রতারকদের। কলকাতার চাঁদনি চকের একটি হোটেলের সামনে সেই টাকা প্রতারকদের হাতে তুলে দিয়েছিলেন তাঁরা। এর পরই বুঝতে পারেন গোটাটাই ভুয়ো।

এই ঘটনায় লালবাজারে অভিযোগ করেন প্রতারিতরা। তদন্তে নামে কলকাতা পুলিশের গুন্ডাদমন শাখা। তাতে বুধবার মেলে সাফল্য। একটি হোটেলে হানা নিয়ে প্রতারণা চক্রের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেন গোয়েন্দারা। সঙ্গে মিলেছে ভুয়ো পরিচয়পত্র, কলকাতা পুলিশের ভুয়ো বেল্ট ও টুপি। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতরা শুভ্র নাগ রায়, রবি মর্মু, পরিতোষ বর্মন, মাসুদ রানা। এর মধ্যে মাসুদ রানা নিজেকে কলকাতা পুলিশের DSP বলে পরিচয় দিতেন। ধৃতরা আর কোথায় কোথায় প্রতারণা করেছেন জানতে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

 

বন্ধ করুন