বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > নারীদেহের ভিতরে সুপ্ত পুরুষাঙ্গ, ক্যানসার রোগীর পরীক্ষায় মিলল চাঞ্চল্যকর তথ্য
মহিলা শরীরের ভিতরে অণ্ডকোষের অস্তিত্ব আগে জানলে অস্ত্রোপচারের সাহায্যে তা বাদ দেওয়া যেত, মনে করছেন চিকিৎসকরা। 
মহিলা শরীরের ভিতরে অণ্ডকোষের অস্তিত্ব আগে জানলে অস্ত্রোপচারের সাহায্যে তা বাদ দেওয়া যেত, মনে করছেন চিকিৎসকরা। 

নারীদেহের ভিতরে সুপ্ত পুরুষাঙ্গ, ক্যানসার রোগীর পরীক্ষায় মিলল চাঞ্চল্যকর তথ্য

  • শরীরের ভিতরে সুপ্ত রয়েছে পুরুষদেহের অণ্ডকোষ, আর সেখানেই পাওয়া গিয়েছে ক্যানসার আক্রান্ত কোষ।

শরীরের ভিতর ও বাহিরে পুরুষ ও মহিলা দেহের বৈশিষ্ট ধরা পড়ল বীরভূমের এক ক্যানসার রোগীর। সম্প্রতি পরীক্ষায় ধরা পড়ে এই তথ্য।

দক্ষিণ কলকাতার এক হাসপাতালে ভরতি ওই রোগীকে দেখে সকলেই মহিলা বলেই মনে করবেন। আপাতনজরে তাঁর মধ্যে পুরুষের কোনও লক্ষণ নেই। কিন্তু পরীক্ষায় ধরা পড়েছে যে, তাঁর শরীরের ভিতরে সুপ্ত রয়েছে পুরুষদেহের অণ্ডকোষ, আর সেখানেই পাওয়া গিয়েছে ক্যানসার আক্রান্ত কোষ।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, রোগীর ২৮ বছর বয়েসি বোনের শরীরেও একই ভাবে সুপ্ত অণ্ডকোষের উপস্থিতি রযেছে, অথচ এতদিন পর্যন্ত তা পরিবারের কারও জানা ছিল না। দুই বোনেরই শরীরে জরায়ু ও ডিম্বাশয়ের অনুপস্থিতি রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গিয়েছে, তাঁদের দুই মাসির শরীরেও জরায়ু ও ডিম্বাশয়ের উপস্থিতি ছিল না। তবে কেরিওটাইপিং পরীক্ষা না হওয়ায় শরীরের অভ্যন্তরে তাঁদেরও অণ্ডকোষ ছিল কি না, তা জানা যায়নি।  

তলপেটে অসহ্য যন্ত্রণা নিয়ে গত এপ্রিল মাসে নিউ গড়িয়ার নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু ক্যানসার হাসপাতালে ভরতি হন বীরভূমের ওই গৃহবধূ। হাসপাতালের সার্জিক্যাল অঙ্কোলজিস্ট সৌমেন দাস এবং ক্লিনিক্যাল অঙ্কোলজিস্ট অনুপম দত্ত তাঁকে পরীক্ষা করেন। সি টি স্ক্যান করলে তাঁর পেটে টিউমারের অস্তিত্ব জানা যায়। পরে পরীক্ষায় ধরা পড়ে ওই টিউমার আসলে পুরুষ দেহের অণ্ডকোষ। 

রোগীর রক্ত পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, ওই রোগীর ‘টেস্টিকিউলার ফেমিনাইজেশন সিনড্রোম’ রয়েছে। শরীরের ভিতরে অবস্থান এবং গঠন অসম্পূর্ণ থাকায় তাঁর অণ্ডকোষ থেকে পুরুষ হরমোন ‘টেস্টোস্টেরন’-এর ক্ষরণ স্বাভাবিক মাত্রায় হয়নি। অন্য দিকে, শরীরে মহিলা হরমোনের উপস্থিতি তুলনায় বেশি থাকায় তাঁর দেহে নারীসুলভ অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ বিকশিত হয়েছিল।  

চিকিৎসকদের আক্ষেপ, মহিলা শরীরের ভিতরে অণ্ডকোষের অস্তিত্ব আগে জানলে অস্ত্রোপচারের সাহায্যে তা বাদ দেওয়া যেত এবং সে ক্ষেত্রে ক্যানসারের সম্ভাবনা থাকত না। তবে রোগীর বোনের ক্ষেত্রে তেমনই ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

বন্ধ করুন