বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > অবেশেষে কোভ্যাক্সিন দেওয়া শুরু বাংলায়, এগিয়ে এসে টিকা নিলেন সরকারি আধিকারিকরা
চলছে টিকাকরণ। ছবি সৌজন্য : ব্লুমবার্গ (Bloomberg)
চলছে টিকাকরণ। ছবি সৌজন্য : ব্লুমবার্গ (Bloomberg)

অবেশেষে কোভ্যাক্সিন দেওয়া শুরু বাংলায়, এগিয়ে এসে টিকা নিলেন সরকারি আধিকারিকরা

  • গত ২২ জানুয়ারি, শুক্রবার এয়ার এশিয়ার বিমানে পশ্চিমবঙ্গে প্রায় ১ লক্ষ ৬০ হাজার ডোজ আসে কোভ্যাক্সিনের।

কোভিশিল্ডের পর এবার ভারত বায়োটেকের তৈরি কোভ্যাক্সিন দেওয়া শুরু হল পশ্চিমবঙ্গে। রাজ্যের তিনটি হাসপাতাল— আর জি কর হাসপাতাল, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও এসএসকেএম হাসপাতালে আজ, বুধবার থেকে কোভ্যাক্সিন দেওয়া শুরু হল। প্রাথমিকভাবে প্রতিটি হাসপাতালে ২০ জন করে পাচ্ছেন এই ভ্যাকসিন। সম্প্রতি জরুরিকালীন ব্যবহারের জন্য কোভ্যাক্সিনকে ছাড়পত্র দেয় কেন্দ্র।

এদিন প্রথম কোভ্যাক্সিন নিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিকর্তা দেবাশিস ভট্টাচার্য ও রাজ্যের স্বাস্থ্য মিশনের শীর্ষ আধিকারিক সৌমিত্র মোহন। জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের এএমডি স্মিতা সান্যাল শুক্লাও এদিন কোভ্যাক্সিন নিয়েছেন। উল্লেখ্য, তড়িঘড়ি কোভ্যাক্সিন প্রয়োগ শুরুর ব্যাপারে মঙ্গলবার কলকাতার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালগুলির বরিষ্ঠ চিকিৎসক ও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন রাজ্য স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিকর্তা দেবাশিস ভট্টাচার্য। কারণ এর আগেই রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যে বিশেষজ্ঞ কমিটির পরামর্শ ছাড়া কোভ্যাক্সিন টিকাকরণ শুরু হবে না।

গত ২২ জানুয়ারি, শুক্রবার এয়ার এশিয়ার বিমানে পশ্চিমবঙ্গে প্রায় ১ লক্ষ ৬০ হাজার ডোজ আসে কোভ্যাক্সিনের। তার মধ্যে বাগবাজারে মেডিক্যাল স্টোরেজে রাখা ছিল ১ লক্ষ ১০ হাজার ডোজ কোভ্যাক্সিন। এবং বাকি ৫০ হাজার হেস্টিংসে কেন্দ্রের ভ্যাকসিন স্টোরেজে রাখা ছিল। অবশেষে কোভ্যাক্সিন দেওয়া শুরু হল রাজ্যে।

প্রসঙ্গত, যাঁরা কোভ্যাক্সিন নিচ্ছেন তাঁরা একটি ‘স্ক্রিনিং অ্যান্ড কনসেন্ট ফর্ম’–এ সই করে তার পর টিকা পাচ্ছেন। তার ফলে কোনও কোভ্যাক্সিন প্রাপকের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিলে তাঁর চিকিৎসার দায়িত্ব নেবে টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থা ভারত বায়োটেকের। একইসঙ্গে দেওয়া হবে ক্ষতিপূরণও।

বন্ধ করুন