বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Fire in Tangra: ট্যাংরায় প্রিন্টিং কারখানায় বিধ্বংসী আগুন, পুড়ে ছাই গাড়ি সহ মেশিন

Fire in Tangra: ট্যাংরায় প্রিন্টিং কারখানায় বিধ্বংসী আগুন, পুড়ে ছাই গাড়ি সহ মেশিন

আগুন নেভাচ্ছেন দমকল কর্মীরা। নিজস্ব ছবি।

ট্যাংরার ৩৭ নম্বর ডিসি দে রোডে ওই প্রিন্টিং কারখানায় হঠাৎ আগুন লাগে । মুহূর্তে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। কালো ধোঁয়ায় ভরে যায় গোটা এলাকা। তড়িঘড়ি স্থানীয় বাসিন্দারা দমকলে খবর দেন। ঘটনাস্থলে দমকলের ৬ টি ইঞ্জিন এসে উপস্থিত হয়। মূলত কী কারণে এই আগুন লেগেছে তা জানা যায়নি।

প্রিন্টিং কারখানায় বিধ্বংসী আগুন লেগে পুড়ে ছাই হয়ে গেল প্রিন্টিং মেশিন, বিয়ের কার্ড সহ একাধিক জিনিসপত্র। আজ দুপুরে ট্যাংরার ৩৭ নম্বর ডিসি ডে রোডে অবস্থিত ওই কারখানায় আগুন লাগে। মুহূর্তে আগুন ছড়িয়ে পড়ে গোটা কারখানায়। খবর পেয়ে দমকলের ৬টি ইঞ্জিন ঘণ্টা খানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ঘটনায় হতাহতের খবর পাওয়া না গেলেও প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে আশঙ্কা কারখানার মালিকের। এদিন আগুন লাগার ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় আতঙ্ক ছড়ায়।

স্থানীয় এবং দমকল সূত্রে জানা গিয়েছে, ট্যাংরার ৩৭ নম্বর ডিসি দে রোডে ওই প্রিন্টিং কারখানায় হঠাৎ আগুন লাগে । মুহূর্তে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। কালো ধোঁয়ায় ভরে যায় গোটা এলাকা। তড়িঘড়ি স্থানীয় বাসিন্দারা দমকলে খবর দেন। ঘটনাস্থলে দমকলের ৬ টি ইঞ্জিন এসে উপস্থিত হয়। মূলত কী কারণে এই আগুন লেগেছে তা জানা যায়নি। পার্শ্ববর্তী কারখানাটির মালিক জানান, যে কারখানায় আগুন লেগেছে তার পাশেরটি ওনার। যে কারখানায় আগুন লেগেছে সেই কারখানায় ওনার গাড়ি থাকতো। গাড়িটি আগুনে পুড়ে গিয়েছে। এদিকে, যে কারখানায় আগুন লেগেছে সেই কারখানার প্রিন্টিং মেশিন, বিয়ের কার্ড, কার্টুন এগুলি পুড়ে গিয়েছে। দমকল কর্মীরা প্রথমে বাইরে থেকে আগুন নেভানোর পর ভিতরে ঢুকে পকেট ফায়ারগুলি নিভিয়ে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ঠিক কী কারণে আগুন লেগেছে এখনও স্পষ্টভাবে জানা যায়নি। তবে কারখানায় কাগজ এবং দাহ্য পদার্থ থাকায় আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন স্থানীয়রা। তবে আগুন নেভাতে তেমন বেগ পেতে হয়নি দমকলকে। আগুন নেভানোর কাজে হাত লাগিয়েছিলেন স্থানীয়েরাও। দমকল সূত্রে জানা গিয়েছে, দুপুর ২টো নাগাদ ওই কারখানার আগুন সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

এদিন আগুন লাগার ফলে কারখানার প্রিন্টিং মেশিন,বিয়ের কার্ড পুড়ে ছাই হয়ে গিয়েছে। ফলে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা করছেন কারখানার মালিক। ক্ষতির পরিমাণ খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কী কারণে আগুন লাগল তাও খতিয়ে দেখছেন দমকল কর্মীরা। দমকলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘স্থানীয়রা কারখানাটি বন্ধ ছিল বলে দাবি করলেও আমরা এসে সেরকম কিছু দেখিনি। কারখানায় বেশ কিছু প্রিন্টিং মেশিন ছিল। এ ছাড়াও বিয়ের কার্ড, কার্টুন, একটি বাইক ও একটি গাড়ি ছিল।’ সেগুলি পুড়ে গিয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বাংলার মুখ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

টেস্ট সিরিজ জেতার জন্য তরুণদের প্রশংসা করলেন কোহলি! জয়ের কারণ জানালেন বিরাট আইএসসির রসায়ন পরীক্ষা পিছিয়ে গেল! কারণটি কী? সোমবারের বদলে কোন দিন হবে গ্রেফতারিতে বাধা নেই, আদালত অবস্থান স্পষ্ট করতেই শাহজাহানের বিরুদ্ধে পর পর FIR এই পারিবারিক রীতিগুলি ছোটদের শেখাচ্ছেন তো? মূল্যবোধ তৈরি করতে কাজে লাগে এগুলি 'ফেসবুকের রাস্তায় না নেমে...' সন্দেশখালি ইস্যুতে আন্দোলনের ডাক রুদ্রনীলের ‘আসল জিনিস ঠিক থাকলে, মেয়ে আসবে ছুটে’! ৫৩র কাঞ্চন, শ্রীময়ী ৩০, কটাক্ষ ইউটিউবারের ১০বছর বাদে ১৫০+ রান চেজ করে জয় ভারতের,ব্যাজবল জমানায় প্রথম সিরিজ হার ইংল্যান্ডের আর একফোঁটা জলও যাবে না পাকিস্তানে, নদীর প্রবাহ পুরোপুরি থমকে দিল ভারত তদন্তের মুখে CR7! মেসি স্লোগান শুনে মেজাজ হারিয়ে রোনাল্ডোর অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি কলাপাতার বহু গুণ, কী কী উপকার পেতে পারেন, ভাবতেও পারবেন না

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.