বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌মা তুমি কার?’‌, উড়ালপুলের কৃতিত্বের দাবিতে চরমে তরজা অশোক–ফিরহাদের
ফিরহাদ হাকিম। ফাইল ছবি
ফিরহাদ হাকিম। ফাইল ছবি

‘‌মা তুমি কার?’‌, উড়ালপুলের কৃতিত্বের দাবিতে চরমে তরজা অশোক–ফিরহাদের

  • এবার এই ইস্যুতে তৃণমূল কংগ্রেস বনাম সিপিআইএমের তরজা চরমে উঠেছে।

মা তুমি কার?‌ মা কী কারও একার?‌ এখন এই অধিকারের লড়াই নিয়ে রাজ্য–রাজনীতি তুঙ্গে উঠেছে। কারণ গতকালই যোগী রাজ্যের উন্নয়নের ফিরিস্তি দিয়ে বিরাট বিজ্ঞাপন প্রকাশ করা হয়েছিল। আর সেখানেই জায়গা পেয়েছিল কলকাতার ‘‌মা উড়ালপুল’‌–এর। তখন কড়া টুইট করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাতে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর মুখ পুড়েছিল। এবার এই ইস্যুতে তৃণমূল কংগ্রেস বনাম সিপিআইএমের তরজা চরমে উঠেছে।

কেন এই তরজা?‌ এখানে উঠে এসেছে, মা উড়ালপুলের কৃতিত্ব কার ঘাড়ে বর্তাবে তা নিয়েই তরজা। তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে গতকালই দাবি করা হয়েছিল, উত্তরপ্রদেশের যোগী আদিত্যনাথের সরকার এবার তৃণমূল কংগ্রেসের উন্নয়নের ছবি চুরি করেছে। এই উন্নয়নের দাবিদার যে তাঁরা তা স্পষ্ট করা হয়েছিল। একাধিক নেতা–নেত্রী এই বিষয়ে তোপ দেগেছিলেন। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছিলেন, উত্তরপ্রদেশের রাস্তায় হলুদ ট্যাক্সি চলে নাকি? যোগী রাজ্যে নীল–সাদা উড়ালপুল আছে নাকি?

এই নিয়ে যখন বিতর্ক চরমে তখন মুখ খুললেন সিপিআইএম নেতা অশোক ভট্টাচার্য। তিনি বলেন, ‘‌সিপিআইএমের আমলেই তো কলকাতার যত উন্নয়নের কাজ হয়েছে। চ্যালেঞ্জ করে বলছি। শুধু ওরা মা উড়ালপুল নামটা দিয়েছে। আমাদের সময়েই টাকা বরাদ্দ হয়েছিল।’‌ এই চ্যালেঞ্জের পাল্টা জবাব দিয়েছেন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, ‘‌অর্ধেক হয়েছিল মা উড়ালপুল। দুটি পিলার ছাড়া আর কিছুই করেনি ওরা।’‌ এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পনেছে একাধিক মিম। যেখানে যোগীকে বিঁধে নেটিজেনদের কটাক্ষ, ‘‌মা কি তোর একার রে পাগলা!’‌

বন্ধ করুন