বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > উত্তরাখণ্ডের বৃষ্টির জলে প্লাবিত হয়েছে কলকাতা, দাবি ফিরহাদ হাকিমের
ফিরহাদ হাকিম, ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই
ফিরহাদ হাকিম, ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই

উত্তরাখণ্ডের বৃষ্টির জলে প্লাবিত হয়েছে কলকাতা, দাবি ফিরহাদ হাকিমের

  • প্রশ্ন উঠছে, বৃষ্টির পূর্বাভাস তো ছিল। তাহলে কেন আগে থেকে খাল পরিষ্কারের উদ্যোগ নেয়নি সরকার? তাহলে তো হাজার কিলোমিটার উজিয়ে উত্তরাখণ্ডের ঘাড়ে দায় ঠেলার দরকার পড়ত না মন্ত্রীমশাইয়ের।

কলকাতা ও শহরতলিতে জল জমার জন্য উত্তরাখণ্ডকে দায়ী করলেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী তথা কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম। বৃহস্পতিবার জমা জল নিয়ে প্রশ্নের মুখে একথা বলেন তিনি। ফিরহাদের এমন দাবিতে পালটা কটাক্ষ ছুঁড়ে দিয়েছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার।

এদিন ফিরহাদ বলেন, ‘গঙ্গাও থইথই করছে। অর্থাৎ ওপর থেকে, উত্তরাখণ্ড থেকে জলটা হইহই করে আসছে। এরকম বৃষ্টি তো হয়নি। যেটা গত কয়েকদিনের মধ্যে হয়েছে।’

বলে রাখি, পূর্ণিমার কোটালে জলস্তর বেড়েছে ভাগীরথিসহ একাধিক নদীতে। যার জেরে ঘূর্ণাবর্তের জেরে নাগাড়ে বৃষ্টিতে জমা জল নামতে দেরি হচ্ছে। কিন্তু এদিন তাতেও বিজেপি শাসিত উত্তরাখণ্ডের ঘাড়ে দায় ঠেলেন ফিরহাদ। তিনি বলেন, ‘সেচ দফতরকে বলেছি তাড়াতাড়ি খাল পরিষ্কার করতে। তাহলেই জল নেমে যাবে। এত বৃষ্টি তো আগে হয়নি।’ প্রশ্ন উঠছে, বৃষ্টির পূর্বাভাস তো ছিল। তাহলে কেন আগে থেকে খাল পরিষ্কারের উদ্যোগ নেয়নি সরকার? তাহলে তো হাজার কিলোমিটার উজিয়ে উত্তরাখণ্ডের ঘাড়ে দায় ঠেলার দরকার পড়ত না মন্ত্রীমশাইয়ের।

পালটা বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, ‘উনি নদীবিজ্ঞানে নতুন তত্ত্বের প্রবর্তন করলেন। সরকারের উচিত ছিল যে সব জায়গায় জল জমেছে সেখানে বিদ্যুতের তারগুলির অবস্থা খতিয়ে দেখা। তাহলে এতগুলো প্রাণ যেত না। সেসব না করে অন্য রাজ্যের ঘাড়ে দায় ঠেলছেন উনি।’

 

বন্ধ করুন