বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Alia university accident: দুর্ঘটনার সময় আলিয়ার সামনে CCTV বন্ধ ছিল, কেন, তার কারণ জানালেন ফিরহাদ হাকিম

Alia university accident: দুর্ঘটনার সময় আলিয়ার সামনে CCTV বন্ধ ছিল, কেন, তার কারণ জানালেন ফিরহাদ হাকিম

ফিরহাদ হাকিম। (নিজস্ব চিত্র)

গাড়ির মালিকে গ্রেফতারের দাবিতে সোমবার সকাল থেকেই উতপ্ত ছিল বিশ্ব বাংলা গেট চত্ত্বর। রাস্তায় বসে পড়ে ছাত্ররা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তাঁরা মালিকের নাম প্রকাশ্যে আনা এবং ঘটনার সময়ের সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশের দাবি তোলেন।

আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে পথ দুর্ঘটনার জেরে সোমবার ছাত্র বিক্ষোভ অব্যাহত ছিল। ছাত্রদের দাবি, সিসিটিভি ফুটেজ দেখাতে হবে পুলিশকে। ছাত্রদের দাবি মেনে নিলেও সিসিটিভ ফুটেজ দেখাতে পারেনি পুলিশ। কেন, তার কারণ স্পষ্ট করলেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে কাজ চলার কারণে সিসি ক্যামেরা বন্ধ রাখা হয়েছিল বলে জানালেন তিনি। তাই ঘটনার সময়কার ছবি পাওয়া যাচ্ছে না। তবে মন্ত্রীর আশ্বাস দোষীরা শীঘ্রই ধরা পড়বে।

ছাত্রদের বিক্ষোভ আন্দোলনের প্রেক্ষিতে মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন,'খুবই দুঃখজনক ঘটনা। একজন ছাত্র মারা গিয়েছে। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করছে। চালক ধরা পড়বে। উপযুক্ত শাস্তি পাবে।' ঘটনায় সময় কেন সিসি ক্যামেরার ছবি পাওয়া গেল না সেই প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন,'ঘটনাস্থলের কাছে সিসি ক্যামেরাগুলি বন্ধ ছিল। ওই এলাকায় কাজ হচ্ছিল।'

কিন্তু ফিরহাদ হাকিমের এই বক্তব্যে সন্তুষ্ট নয় ছাত্ররা। তাদের প্রশ্ন, এমন কী কাজ চলছিল যে ওই রকম একটা গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় সিসি ক্যামেরা বন্ধ রাখতে হয়েছিল? যদিও এই প্রশ্নের উত্তর মন্ত্রী দেননি। তিনি কী কাজ চলছিল তার বিস্তারিত ব্যাখ্যাও দেননি। তাঁর আশ্বাস, দোষীরা উপযুক্ত শাস্তি পাবে।

গাড়ির মালিকে গ্রেফতারের দাবিতে সোমবার সকাল থেকেই উতপ্ত ছিল বিশ্ব বাংলা গেট চত্ত্বর। রাস্তায় বসে পড়ে ছাত্ররা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। তাঁরা মালিকের নাম প্রকাশ্যে আনা এবং ঘটনার সময়ের সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশের দাবি তোলেন।

পুলিশ দাবি, রুবির কাছে একটি গ্যারাজে ঘাতক গাড়িটির সন্ধান মিলেছে। তদন্তের স্বার্থেই পুলিশ মালিকের নাম প্রকাশ করতে চায়নি।

ছাত্রদের অভিযোগ গাড়ির মালিক প্রভাবশালী বলেই তাঁর নাম প্রকাশ করেছ না পুলিশ। এ প্রসঙ্গে পুরমন্ত্রীর বক্তব্য, 'প্রভাবশালী বলতে আপনারা রাজনৈতিক নেতাদের মনে করেন। কিন্তু যাঁদের পয়সা আছে তাঁরাও তো প্রভাবশালী।' তিনি আরও বলেন,'ছাত্ররা অবাস্তব দাবি করছে। পুলিশকে আগে কেসটা বানাতে হবে। তথ্য-প্রমাণ ছাড়া আদালতে গেলে পুলিশকে অপদস্ত হতে হবে। যে কাউকে ধরে আনলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট মিলবে না। পুলিশ যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। কিছুটা সময় দিতে হবে তাদের। ছাত্রদের এটা বুঝতে হবে।'

বন্ধ করুন