বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নারদ মামলা: ব্যাঙ্কশাল কোর্টে হাজিরা ফিরহাদ-সুব্রত-মদনদের, পরবর্তী শুনানি ১৮ জুন
ফিরহাদ হাকিম, ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই
ফিরহাদ হাকিম, ফাইল ছবি, সৌজন্যে পিটিআই

নারদ মামলা: ব্যাঙ্কশাল কোর্টে হাজিরা ফিরহাদ-সুব্রত-মদনদের, পরবর্তী শুনানি ১৮ জুন

  • আজ সকালে কলকাতার ব্যাঙ্কশাল কোর্টে হাজিরা দেন নারদ কাণ্ডে অভিযুক্ত ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়।

আজ সকালে নারদ মামলার শুনানিতে হাজিরা দিলেন ঘুষ কাণ্ডে অভিযুক্ত মন্ত্রী এবং বিধায়ক ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং মদন মিত্র এবং কলকাতার প্রাক্তন মহানাগরিক শোভন চট্টোপাধ্যায়। এদিন কলকাতার ব্যাঙ্কশাল কোর্টে এই মামলার শুনানি হয়। সেখানেই নিয়মমাফিক হাজিরা দেন চার হেভিওয়েট। বর্তমানে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে চারজনই শর্তসাপেক্ষ জামিনে মুক্ত।

আজ সকালে কলকাতার ব্যাঙ্কশাল কোর্টে পৌঁছে যান নারদ কাণ্ডে অভিযুক্ত ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়। মাত্র দশ মিনিটের জন্য শুক্রবার সকালে এই চার নেতা ব্যাঙ্কশাল কোর্টে আসেন। তাঁরা আদালত চত্বরে পৌঁছান সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে এবং বেরিয়ে যান ১০টা ৫০ মিনিটে। এদিন শোভনবাবুর সঙ্গে এসেছিলেন তাঁর বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন অভিযুক্ত পক্ষের এক আইনজীবী জানান, আদালতের নির্দেশই এই চার নেতা আজ সকালে ব্যাঙ্কশাল কোর্টে হাজিরা দেন। তিনি বলেন, আদালতের আদেশ অনুসারে এই চারজন আপাতত শর্তসাপেক্ষ জামিনে মুক্ত। আর এই জামিনের অন্যতম নিয়ম হল নিয়মিত আদালতে হাজিরা দেওয়া। তাই আজ সকালে ব্যাঙ্কশাল কোর্টে এই চার নেতা মন্ত্রীর হাজিরা দিতে আসেন।

প্রসঙ্গত, ১৭ মে নারদ মামলায় সিবিআই গ্রেফতার করে এই চার নেতা-মন্ত্রীকে। সেদিন বিকালেই কলকাতার এক নিম্ন আদালত চারজনেরই জামিন মঞ্জুর করে। কিন্তু তার কিছুক্ষণ পরেই কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে জামিন নামঞ্জুর হয়ে যায়। সুব্রতবাবু, শোভনবাবু এবং মদনবাবু অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। কিন্তু হিরহাদ হাকিম জেল হাসপাতালেই থাকেন। প্রথমে আদালত তাঁদের গৃহবন্দী থাকার নির্দেশ দেয়। তারপরে অবশেষে শর্তসাপেক্ষ জামিন মঞ্জুর হয় চার অভিযুক্তর।

বন্ধ করুন