বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > St. Xaviers: সুইমস্যুট বিতর্কের ঝড় এবার আদালতে, মামলা দায়ের হাইকোর্টে
সুইমস্যুট বিতর্কের রেশ এবার আদালতে। প্রতীকী ছবি  (HT_PRINT)

St. Xaviers: সুইমস্যুট বিতর্কের ঝড় এবার আদালতে, মামলা দায়ের হাইকোর্টে

  • ইনস্টাগ্রামে সুইমস্যুট পরা ছবি পোস্ট করেছিলেন সেন্ট জেভিয়ার্সের এক অধ্যাপক। এরপর সেই স্নানপোশাক পরা ছবিটি অভিভাবকদের দেখিয়েছিলেন প্রথম বর্ষের এক পড়ুয়া। সেই থেকেই বিতর্কের সূত্রপাত।

এবার কলকাতা হাইকোর্টে মামলা দায়ের করলেন সেন্ট জেভিয়ার্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই প্রাক্তন অধ্যাপক। মূলত সুইমস্যুট বিতর্কের জেরেই এবার আদালত পর্যন্ত বিষয়টি গড়িয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে এনিয়ে অফিসিয়ালি কোনও নিশ্চয়তা পাওয়া যায়নি। তবে আগেই নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ তুলেছিলেন ওই অধ্যাপক। পাশাপাশি ওই ঘটনায় রিপোর্টও তলব করেছিল রাজ্যের মহিলা কমিশন।

এদিকে জাতীয় এক সংবাদমাধ্যমে মুখ খুলেছিলেন ওই প্রাক্তন অধ্যাপক। তাঁর বক্তব্য ছিল, আমার ব্যক্তিগত ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে দেওয়া ছবি নিয়ে একের পর এক প্রশ্ন করা হয়েছিল আমায়। কার্যত জেরা করা হয়েছিল আমায়। কুরুচিকর আক্রমণ করার অভিযোগও তুলেছিলেন তিনি। হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাতেও মুখ খুলেছিলেন তিনি। তবে সূত্রের খবর,আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর কলকাতা হাইকোর্টে বিচারপতি কৌশক চন্দর বেঞ্চে এই মামলাটি শুনানির জন্য উঠতে পারে।

এদিকে ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে স্নানপোশাক পরে ছবি পোস্ট করাকে কেন্দ্র করেই বিতর্কের সূত্রপাত। মূলত স্টোরি হিসাবেই সেটি পোস্ট করা হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। সূত্রের খবর প্রথম বর্ষের এক ছাত্র ওই ছবি তার অভিভাবকদের দেখায়। তারপরেই এনিয়ে তুমুল শোরগোল পড়ে যায়। শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়ে গিয়েছেন বলেও অভিযোগ উঠতে থাকে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কাছেও নালিশ জানানো হয়েছিল। তার জেরে বিতর্ক যেন আরও উসকে ওঠে। আর এসবের পরিণতিতে ইস্তফা দিয়েছিলেন ওই অধ্যাপক।

তখন আবার নতুন করে বিতর্ক দানা বাঁধতে শুরু করে।এভাবে কোন মহিলা অধ্যাপক ব্যক্তিগত ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে ছবি পোস্ট করলে সেখানে আপত্তি তোলা কতটা সঙ্গত তা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে। নেটমাধ্যমেও এনিয়ে ঝড় উঠছিল।সেইসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিল। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে বলা হয়েছিল পবিত্র প্রতিষ্ঠানে আমাদের পবিত্র থাকতে হবে। নীতি পুলিশের বিষয়টিও মানতে চায়নি বিশ্বিবিদ্যালয়। তবে এবার আদালত কী পদক্ষেপ নেয় সেদিকেই নজর বিভিন্ন মহলের। 

বন্ধ করুন