বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌আপনার ছেলেকে মেরে দেওয়া হয়েছে’‌, পুলিশের ভাষায় আক্ষেপ গ্যাংস্টারের বাবার
লুধিয়ানায় পুলিশ খুনে অভিযুক্ত জয়পাল ভুল্লার, জসপ্রীত সিং সহ চার অভিযুক্ত (ফাইল ছবি)
লুধিয়ানায় পুলিশ খুনে অভিযুক্ত জয়পাল ভুল্লার, জসপ্রীত সিং সহ চার অভিযুক্ত (ফাইল ছবি)

‘‌আপনার ছেলেকে মেরে দেওয়া হয়েছে’‌, পুলিশের ভাষায় আক্ষেপ গ্যাংস্টারের বাবার

  • টেকনোসিটি থানায় পুলিশের সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। ভূপিন্দর সিং ভুল্লার নিজে পাঞ্জাবের একজন পুলিশ কর্মী।

ছেলের নাম–জয়পাল সিং ভুল্লার। নিউটাউনের ঘটনায় শহর কলকাতা শুনল এই নাম। যে পাঞ্জাবি গ্যাংস্টার বলে পরিচিত। এসটিএফের এনকাউন্টারে খতম হয়েছে। আর এবার তার দেহ নিতে কলকাতায় পৌঁছলেন গ্যাংস্টারের বাবা ভূপিন্দর সিং ভুল্লার। টেকনোসিটি থানায় পুলিশের সঙ্গে কথাও বলেন তিনি। ভূপিন্দর সিং ভুল্লার নিজে পাঞ্জাবের একজন পুলিশ কর্মী।

জানা গিয়েছে, জয়পাল সিং ভুল্লারের বাবা ভূপিন্দর সিং ও দুই আত্মীয় বৃহস্পতিবার কলকাতা আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে নামেন। সেখান থেকে ট্যাক্সিতে সোজা পৌঁছন টেকনো সিটি থানায়। সেখানে পুলিশ ও এসটিএফ আধিকারিকদের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা। ভূপিন্দর সিং ভুল্লার বলেন, ‘‌আমাকে পুলিশ জানিয়েছিল, আপনার ছেলে মেরে দেওয়া হয়েছে। এখন মৃতদেহ নিতে এসেছি। আর কী বা বলব!’‌

সূত্রের খবর, এসটিএফের পক্ষ থেকে ফ্ল্যাটের দুই মালিককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। মূলত আকবর আলি ও মোদাসসর আলিকে থানায় ডাকা হয়েছিল। মোদাসসরের শরীর ভাল না থাকায় তিনি থানায় উপস্থিত হতে পারেননি। বদলে তাঁর দুই ভাই আকবর আলি ও সাবির আলি হাজিরা দেন। বেশ কিছু নথিও তাঁদের কাছে দেখতে চেয়েছিল পুলিশ। তাও দাখিল হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, প্রায় তিন ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর টেকনো সিটি থানা থেকে বেরিয়ে আসেন আকবর ও সাবির। পুলিশের তদন্তে সহযোগিতা করবেন বলে জানান তাঁরা। ভাড়া দেওয়ার প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ অনলাইনে হয়েছিল বলে তাঁদের দাবি। সুমিত কুমার নামে তৃতীয় ব্যক্তির নামে তা ভাড়া নেওয়া হয়। পাসপোর্ট, আধার কার্ড দেখিয়ে ফ্ল্যাট নেওয়া হয়েছিল। সুশান্তকে ফোন করেছিলেন সুমিতই। উদ্ধার হয়েছে ‘মেড ইন পাকিস্তান’ রিভলভার।

বন্ধ করুন