দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি
দিলীপ ঘোষ। ফাইল ছবি

ড্রাগস খাইয়ে মেয়েদের দিয়ে আন্দোলন করানো হয়, নারী দিবসে দাবি দিলীপের

  • দিলীপ ঘোষের সতর্কবাণী, ‘এই মেয়েরা এরকম করলে তাদের সঙ্গে সাধারণ মানুষ কী ব্যবহার করবে? এরা তো হিংসার শিকার হবে।’

রবীন্দ্রভারতী কাণ্ড নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রবিবার তিনি বলেন, ‘রাজ্যের সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে। মেয়েদের ড্রাগস খাইনে আন্দোলনে নামানো হচ্ছে।’ এমনকী এরকম করলে মেয়েরা রাস্তায় হিংসার শিকার হতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি। দিলীপবাবুর এই মন্তব্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তৃণমূল-সহ বিরোধীরা।

দিলীপবাবু বলেন, ‘রাজ্যের সংস্কৃতি নষ্ট হচ্ছে। মেয়েরা সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ভুলে যাচ্ছে। মেয়েদের ড্রাগস খাইয়ে আন্দোলনের সামনে বসিয়ে দেওয়া হচ্ছে। আর সারাদিন তারা চ্যাচাচ্ছে। এ কোন বাংলা?’

দিলীপ ঘোষের সতর্কবাণী, ‘এই মেয়েরা এরকম করলে তাদের সঙ্গে সাধারণ মানুষ কী ব্যবহার করবে? এরা তো হিংসার শিকার হবে।’

সঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই অবক্ষয়ের জন্য নির্দিষ্ট কেউ দায়ী নয়। এটা সামগ্রিক অবক্ষয়। সবাইকে দেখতে হবে কেন এমন হচ্ছে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় দায়িত্বশীল মন্ত্রী। আশা করি তিনি জিনিসটা দেখবেন।’

দিলীপবাবুর বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘উনি নিয়ে ড্রাগ খেয়ে আছেন কি না সেটা আগে দেখার দরকার। একটা অসভ্য, বর্বর লোক। তাকে আবার বিজেপি রাজ্য সভাপতি করেছে। বাংলার মানুষের উচিন ওকে বয়কট করা।’

ফিরহাদের মন্তব্যকে পালটা আক্রমণ করেছে বিজেপি। তাদের প্রশ্ন, হোক কলরব আন্দোলনের সময় যখন অভিষেক বন্দ্যোপায়াধ্যায় ‘মদ, গাঁজা, চরস বন্ধ। তাই কি প্রতিবাদের গন্ধ’ লিখে টুইট করেছিলেন, তখন কোথায় ছিলেন ফিরহাদ?



বন্ধ করুন