বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দুর্গাপুজোর আগেই সল্টলেকের বাসিন্দাদের 'উপহার', রাতেও আসবে জল
জল 
জল 

দুর্গাপুজোর আগেই সল্টলেকের বাসিন্দাদের 'উপহার', রাতেও আসবে জল

এখন নিউ টাউন জল প্রকল্প থেকে জল সল্টলেকে এসে পৌঁছাচ্ছে। প্রতিদিন সল্টলেকে প্রায় ১১ লাখ গ্যালন জল এসে পৌঁছাচ্ছে।

পুজোর আগে এবার থেকে রাতেও জল পাবেন সল্টলেকের বাসিন্দারা। সম্প্রতি বিধানননগর পুরনিগমের তরফ থেকে এই কথাই জানানো হয়েছে। এখন সকালে, দুপুরে ও বিকেলে জল সরবরাহ করা হয় পুরনিগম থেকে। এবার দিনে চারবেলাই জল পাবেন সল্টলেকের বাসিন্দারা।

এই প্রসঙ্গে বিধাননগর পুরনিগমের প্রশাসকমণ্ডলীর সদস্য তুলসী সিং রায় জানান, ‘‌রাত ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত চতুর্থ দফায় জল দেওয়া হবে। অক্টোবরে পুজোর আগেই জল দেওয়া শুরু হয়ে যাবে।’‌ একইসঙ্গে পুরনিগমের তরফে জানানো হয়েছে, রাতে জরুরিভিত্তিতে কারও প্রয়োজন হলে পুরসভার জলের গাড়ি বাসিন্দাদের বাড়ি বাড়ি পাঠানো হবে। এর আগে জরুরিভিত্তিতে প্রয়োজন হলে পুরসভার জলের গাড়ি পাওয়া যেত না। কিন্তু এখন তা পাওয়া যাবে। এর ফলে বাসিন্দাদের অনেকটাই সুবিধা হবে। রাত ৯টা পর্যন্ত জরুরিভিত্তিতে এই পরিষেবা পাওয়া যাবে।

এই প্রসঙ্গে বিধাননগর পুরনিগমের প্রশাসক কৃষ্ণা চক্রবর্তী জানান, ‘‌রাতে জল সরবরাহ করার বিষয়টি পরীক্ষামূলকভাবে শুরু হয়েছে। তবে পুজোর আগেই পাকাপাকিভাবে রাতে জল সরবরাহ করা হবে।’‌ পুরনিগম সূত্রে খবর, আগে টালার জলের উপর সল্টলেকের বাসিন্দাদের নির্ভর করতে হত। কিন্তু এখন নিউটাউন জল প্রকল্প থেকে জল সল্টলেকে এসে পৌঁছাচ্ছে। প্রতিদিন সল্টলেকে প্রায় ১১ লাখ গ্যালন জল আসছে। এখন আগের তুলনায় প্রচুর মানুষ সল্টলেকে বসবাস করতে শুরু করেছে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই জলের চাহিদা বাড়ছে। মূল সল্টলেকের পাশাপাশি মহিষবাথান, সুকান্তনগরের মতো এলাকা রয়েছে, যেখানে জনবসতি বাড়ছে। এই সব কথা মাথায় রেখে জল সরবরাহ আরও সচল করার কথাই ভাবছে পুরনিগম।

বন্ধ করুন