বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > BSF-র এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে বিধানসভার প্রস্তাবের কার্যবিবরণী চাইলেন ধনখড়
BSF-র এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে বিধানসভার প্রস্তাবের কার্যবিবরণী চাইলেন ধনখড়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
BSF-র এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে বিধানসভার প্রস্তাবের কার্যবিবরণী চাইলেন ধনখড়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

BSF-র এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে বিধানসভার প্রস্তাবের কার্যবিবরণী চাইলেন ধনখড়

  • কিছুদিন আগেই এ নিয়ে রাজ্য বিধানসভায় একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে।

সম্প্রতি বিএসএফের এলাকা বৃদ্ধির নির্দেশিকা জারি করেছে কেন্দ্র সরকার। তার ফলে এবার থেকে বিএসএফের এক্তিয়ারভুক্ত এলাকা ১৫ কিলোমিটারের বদলে ৫০ কিলোমিটার করা হচ্ছে। কেন্দ্রের এই নির্দেশের প্রতিবাদে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন বিরোধীরা। কিছুদিন আগেই এ নিয়ে রাজ্য বিধানসভায় একটি প্রস্তাব পাস হয়েছে। সেই প্রস্তাব নিয়ে এবার মুখ খুললেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। তিনি অভিযোগ করেছেন, এখনও তার কাছে প্রস্তাবের বিস্তারিত কার্যবিবরণী পাঠানো হয়নি।

এবার রাজ্য সরকারের কাছে প্রস্তাবের কার্যবিবরণী চেয়ে পাঠিয়েছেন তিনি। এ নিয়ে রীতিমতো টুইটারে পোস্টও করেছেন রাজ্যপাল। টুইট পোস্টে তিনি লিখেছেন, রাজ্য বিধানসভায় পাস হওয়া প্রস্তাবের বিস্তারিত কার্যবিবরণী চেয়ে পাঠানো হয়েছে। রাজ্যপালের এই পোস্টের পরেই বিধানসভার পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় রাজ্যপালের বিরুদ্ধে বিধানসভার কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন। তিনি বলেন, 'রাজ্যপাল প্রতিবারই বিধানসভার কাজে বাধা দেওয়ার চেষ্টা করেন। তা আবারও একবার প্রমাণিত হল।' রাজ্যপালের এই অভিযোগ প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে ছাড়েননি বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

তিনি বলেন, 'রিপোর্ট না পাঠানো নিয়ে রাজ্যপালের এই অভিযোগ ঠিক নয়।' পার্থ চট্টোপাধ্যায় মনে করছেন, বিএসএফের এলাকা বৃদ্ধি হলে পুলিশের অধিকার খর্ব হবে। যদিও বিএসএফের এডিজি ওয়াই বি খুরানিয়া সম্প্রতি জানিয়েছিলেন, পুলিশের কাজে হস্তক্ষেপ করবে না বিএসএফ। রাজ্য পুলিশের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখেই তারা চলবে। বিএসএফের কাজ হল - পাকিস্তান ও বাংলাদেশ সীমানা নিরাপত্তা প্রদান করা। শয়তান মানুষকে সুরক্ষিত রাখা। তিনি জানিয়েছিলেন, বিএসএফের এলাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে ঠিকই কিন্তু ক্ষমতা বৃদ্ধি করা হয়নি।

বন্ধ করুন