বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ফের রাজ্যের মুখ্যসচিব–ডিজিকে চিঠি রাজ্যপালের, বুধবারই জরুরি তলব
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি

ফের রাজ্যের মুখ্যসচিব–ডিজিকে চিঠি রাজ্যপালের, বুধবারই জরুরি তলব

  • প্রথমবার এই ঘটনার রিপোর্ট চেয়ে তাঁদের তলব করা হয়েছিল। দ্বিতীয়বার কেন তাঁরা উপস্থিত হলেন না তা জানতে তলব করেছিলেন। এবার তৃতীয়বার একই ঘটনায় তাঁদের তলব করলেন রাজভবনের বাসিন্দা।

এই নিয়ে তিনবার চিঠি দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। নেতাই গ্রামে কেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে পুলিশ আটকে ছিল?‌ কেন দুর্ব্যবহার করা হয়েছিল?‌ তা নিয়ে রিপোর্ট জানতে এই নিয়ে তৃতীয়বার রাজ্যের মুখ্যসচিব–ডিজিকে চিঠি দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এমনকী আগামীকাল, বুধবার ১২ জানুয়ারি সকাল ১১টা নাগাদ রাজ্যের মুখ্যসচিব এব‌ং ডিজিকে দেখা করতে বলে চিঠি পাঠিয়েছেন রাজ্যপাল। আর তাতেই রাজ্য–রাজনীতি তোলপাড়।

প্রথমবার এই ঘটনার রিপোর্ট চেয়ে তাঁদের তলব করা হয়েছিল। দ্বিতীয়বার কেন তাঁরা উপস্থিত হলেন না তা জানতে তলব করেছিলেন। এবার তৃতীয়বার একই ঘটনায় তাঁদের তলব করলেন রাজভবনের বাসিন্দা। এমনকী যদি তবে করোনাভাইরাসের জন্য তাঁরা নিভৃতবাসে থাকলে সহকারী মুখ্যসচিব এবং ডিজি পরবর্তী আধিকারিককে বৈঠকে উপস্থিত থাকতে চিঠিতে জানিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এই চিঠি দু’টি টুইটারে পোস্টও করেছেন।

এদিনও রাজ্যের মুখ্যসচিব এবং ডিজি–কে আগের বৈঠকে উপস্থিত না থাকার কারণ জানানোর পদ্ধতিকেও ‘অবমাননাকর’ বলে উল্লেখ করে‌ন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এই বারবার নবান্নে রাজভবনের চিঠি পাঠানো এবং তলব করার ঘটনায় সংঘাত বাড়বে বলেই মনে করা হচ্ছে। রাজ্যপালের নামে প্রধানমন্ত্রীর কাছে মুখ্যমন্ত্রী নালিশ করার পর থেকেই তিনি আরও সক্রিয় হয়ে উঠেছেন।

উল্লেখ্য, ৭ জানুয়ারি ঝাড়গ্রামের নেতাইয়ে শহিদ দিবসের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে গিয়েছিলেন শুভেন্দু অধিকারী। কিন্তু তাঁকে আটকে দেয় পুলিশ। এই নিয়ে রাজ্যপালের কাছে নালিশ করেন শুভেন্দু। আদালতের অনুমতি নিয়ে নেতাই যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু সেখানে আগে থেকে একটা সভা চলছিল। তাই তাঁকে আটকে দেয় পুলিশ। এই নিয়েই রাজ্যপাল একের পর এক চিঠি দিয়ে চলেছেন।

বন্ধ করুন