বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > শিক্ষামন্ত্রী–শিক্ষাসচিবকে জরুরি তলব রাজ্যপালের, টুইট করে ডাক রাজভবনে
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। (ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

শিক্ষামন্ত্রী–শিক্ষাসচিবকে জরুরি তলব রাজ্যপালের, টুইট করে ডাক রাজভবনে

  • ইতিমধ্যেই পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআই জেরা করেছে। কলকাতা হাইকোর্ট তাঁকে মন্ত্রী পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিল। সেই পরামর্শ পৌঁছেছিল জগদীপ ধনখড় এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। এবার সেটা কার্যকর করতেই জরুরি তলব?‌

এসএসসি নিয়োগে দুর্নীতি হয়েছে। এই নিয়ে জোর চর্চা রয়েছে রাজ্য–রাজনীতিতে। কলকাতা হাইকোর্টে মামলা চলছে। সিবিআই তদন্ত শুরু করেছে। এই পরিস্থিতিতে এবার আসরে নামলে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। আজ, সোমবার শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এবং শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকে তলব করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

কেন রাজ্যপাল তলব করলেন?‌ সোমবার দুপুরে রাজভবনে শিক্ষামন্ত্রী–শিক্ষা সচিবকে ডেকে পাঠানো হয়েছে। এমনকী এই কথা জগদীপ ধনখড় নিজেই টুইট করে জানিয়েছেন। কী কারণে তলব তা খোলসা করেননি টুইটে। এসএসসি নিয়োগে দুর্নীতি নিয়েই আলোচনা করতে ডাকা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কয়েকদিন আগেও উচ্চশিক্ষার বিষয়ে রাজ্যপাল–শিক্ষামন্ত্রী বৈঠক হয়েছিল।

ঠিক কী লিখেছেন টুইটে?‌ আজ রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় টুইটে লিখেছেন, ‘আজ দুপুরেই পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসু এবং শিক্ষাসচিব মণীশ জৈনকে তলব করা হয়েছে রাজভবনে।’ রাজ্যপালের এই টুইট নিয়ে শুরু হয়েছে জোর চর্চা। কেন তিনি টুইট করে ডাকলেন?‌ এই প্রশ্নও উঠেছে। তবে এই জরুরি তলব নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে সিবিআই জেরা করেছে। কলকাতা হাইকোর্ট তাঁকে মন্ত্রী পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিল। সেই পরামর্শ পৌঁছেছিল জগদীপ ধনখড় এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে। এবার সেটা কার্যকর করতেই জরুরি তলব?‌ একদিকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে অন্যদিকে শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীকে জেরা করেছে সিবিআই। তারপর রাজ্যপালের এই তলব তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন