বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌ধৃষ্টতার ফল পেতে হবে মুখ্যসচিবকে’‌, সরাসরি হুঁশিয়ারি দিয়ে টুইট রাজ্যপালের
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়

‘‌ধৃষ্টতার ফল পেতে হবে মুখ্যসচিবকে’‌, সরাসরি হুঁশিয়ারি দিয়ে টুইট রাজ্যপালের

  • ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যান নিয়োগ নিয়ে রাজ্যপাল চিঠি দেয় রাজ্য সরকারকে। সেই চিঠি টুইট করেছিলেন তিনি। এই ঘটনা ঘটে মে মাসে। সেই টুইট ফের আজ তুলে ধরেন তিনি। সেই চিঠিতে পশ্চিমবঙ্গ ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুনাল অ্যাক্ট ১৯৮৭ সালের ৩(‌২)‌(‌এ)‌ ধারা উল্লেখ করে নিয়োগের কথা বলেছেন তিনি।

নবান্ন–রাজভবন সংঘাত এখনও অব্যাহত। যতদিন যাচ্ছে তত তীব্র হচ্ছে এই সংঘাত। এবারের ইস্যু হয়েছে ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান নিয়োগ। এই নিয়োগ নিয়ে রাজ্যপাল যে নির্দেশ দিয়েছিলেন তা পালন করেননি মুখ্যসচিব বলে অভিযোগ। এই ইস্যুতে রাজ্য সরকার তথা মুখ্যসচিবকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে সরাসরি হুঁশিয়ারি দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এমনকী করলেন টুইটও।

ঠিক কী লিখেছেন রাজ্যপাল?‌ আজ, সোমবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় টুইট করে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যসচিবকে। তিনি লেখেন, ‘‌গত ১২ মে অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি সম্বুদ্ধ চক্রবর্তীকে পশ্চিমবঙ্গ ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান নিয়োগ করতে বলেছিলাম। কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি প্রকাশ শ্রীবাস্তবের সঙ্গে আলোচনা করে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু রাজ্য সরকারকে এই সিদ্ধান্ত কথা জানানোর একমাস কেটে গেলেও এখনও চেয়ারম্যান নিয়োগ করা হয়নি। ধৃষ্টতার ফল পেতে হবে মুখ্যসচিবকে।’‌ এই টুইট সরাসরি হুঁশিয়ারি বলেই মনে করা হচ্ছে।

বিষয়টি ঠিক কী ঘটেছে?‌ রাজভবন সূত্রে খবর, ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যান নিয়োগ নিয়ে রাজ্যপাল চিঠি দেয় রাজ্য সরকারকে। সেই চিঠি টুইট করেছিলেন তিনি। এই ঘটনা ঘটে মে মাসে। সেই টুইট ফের আজ তুলে ধরেন তিনি। সেই চিঠিতে পশ্চিমবঙ্গ ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুনাল অ্যাক্ট ১৯৮৭ সালের ৩(‌২)‌(‌এ)‌ ধারা উল্লেখ করে নিয়োগের কথা বলেছেন তিনি। অর্থ দফতরকে এই নিয়োগ করতে নির্দেশও দেওয়া হয়। কিন্তু তা হয়নি।

ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যান নিয়োগের নিয়ম কী?‌ এই নিয়োগের ক্ষেত্রে দুটি নিয়ম আছে। এক, অর্থ দফতরের অধীনে ট্যাক্সেশন ট্রাইব্যুমাল। রাজ্যের প্রস্তাবিত নাম রাজ্যপালের কাছে পাঠানো হয়। রাজ্যপাল তাতে অনুমোদন দিলে নিয়োগ হয়। দুই, আবার রাজ্যপাল সংশ্লিষ্ট ধারা মেনে নিয়োগ করতে পারেন। সেটাই তিনি করেছিলেন। যা না হওয়ায় মুখ্যসচিবকে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।

বন্ধ করুন