HT বাংলা থেকে সেরা খবর পড়ার জন্য ‘অনুমতি’ বিকল্প বেছে নিন
বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মুখ্যমন্ত্রী এখনও আচার্য হননি, রবীন্দ্র ভারতীর উপাচার্য নিয়োগ করলেন রাজ্যপাল
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

মুখ্যমন্ত্রী এখনও আচার্য হননি, রবীন্দ্র ভারতীর উপাচার্য নিয়োগ করলেন রাজ্যপাল

  • এই বিষয়ে রাজ্যপালের ঘোষণাকে অনৈতিক বলে দাবি করেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘‌রাজ্যপাল অনৈতিক কাজ করছেন। দ্বিচারিতা করছেন পদে থেকে। রাজভবনকে বিজেপির আশ্রয়স্থল করে তুলেছেন।’‌ এখনও বিধানসভায় পাশ হওয়া বিলে রাজ্যপাল সই করেননি। ফলে এখনও তিনিই আচার্য।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাজ্যের সব বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য করার জন্য বিধানসভায় বিল পাশ করা হয়েছিল। সেই বিলে সই করতে হবে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে। এই পরিস্থিতিতে রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য নিয়োগ করলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়৷ সুতরাং মুখ্যমন্ত্রীর আচার্য হওয়ার আগেই নিজের ক্ষমতা দেখালেন রাজ্যপাল বলে মনে করা হচ্ছে।

কাকে রবীন্দ্র ভারতীর উপাচার্য করা হল?‌ রাজ্যপালের টুইট অনুযায়ী, রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন উপাচার্য হলেন নৃত্যকলার অধ্যাপিকা ডঃ মহুয়া মুখোপাধ্যায়। আচার্য হিসেবে আজ, বৃহস্পতিবার মহুয়ার নাম ঘোষণা করেছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। যদিও রাজ্যপালের এই পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা করেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ রাজ্যপালের অবশ্য দাবি, তিনি সার্চ কমিটির সুপারিশ মেনেই নিয়োগ করেছেন৷

ঠিক কী জানিয়েছেন রাজ্যপাল?‌ রাজ্যপাল তাঁর বিবৃতিতে জানিয়েছেন, গত ৯ জুন সার্চ কমিটি তিনজনের নাম পাঠিয়েছিল। তাতে মহুয়া ছাড়াও নাম ছিল গণিতের অধ্যাপক ডঃ সঞ্জীব কুমার দত্ত এবং ইংরেজির অধ্যাপক ডঃ দেবাশিস বন্দ্যোপাধ্যায়ের। কিন্তু প্রথমে নাম ছিল মহুয়া মুখোপাধ্যায়ের। তাই সেই নামই উপাচার্য হিসেবে চূড়ান্ত করেছে রাজভবন। আগামী ৪ জুলাই থেকে নতুন উপাচার্য হিসাবে দায়িত্ব নেবেন মহুয়া মুখোপাধ্যায়।

কী বলছে তৃণমূল কংগ্রেস?‌ এই বিষয়ে রাজ্যপালের ঘোষণাকে অনৈতিক বলে দাবি করেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ তৃণমূল কংগ্রেসের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ বলেন, ‘‌রাজ্যপাল অনৈতিক কাজ করছেন। দ্বিচারিতা করছেন পদে থেকে। রাজভবনকে বিজেপির আশ্রয়স্থল করে তুলেছেন।’‌ এখনও বিধানসভায় পাশ হওয়া বিলে রাজ্যপাল সই করেননি। ফলে এখনও তিনিই আচার্য।