বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কয়লা–গরুপাচারের তদন্তে বাধা দেওয়া হচ্ছে, পুলিশ–প্রশাসনকে সাবধান করলেন রাজ্যপাল
পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি
পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। ফাইল ছবি

কয়লা–গরুপাচারের তদন্তে বাধা দেওয়া হচ্ছে, পুলিশ–প্রশাসনকে সাবধান করলেন রাজ্যপাল

  • রাজ্যপাল এদিন রাজ্যের পুলিশ–প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন, ‘‌কয়লা ও গরু পাচারকারীদের বিরুদ্ধে অভিযানকে রুখতে চাইছেন উর্দিধারী সুবিধাভোগীরা।’‌

পশ্চিমবঙ্গে গরুপাচার ও কয়লা কাণ্ড নিয়ে এবার সুর চড়ালেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। রবিবার সকালে পরপর তিনটি টুইটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং কলকাতা পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন তিনি। এনামুল–সহ গরু পাচারাকারী দলবলের কীর্তি ও কয়লা মাফিয়াদের তাণ্ডবে রাজ্যের প্রশাসনিক ভূমিকা নিয়ে এদিন প্রশ্ন তোলেন রাজ্যপাল। তিনি পরিষ্কার জানান, কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়।

মুখ্যমন্ত্রী ও কলকাতা পুলিশকে ট্যাগ করে ওই টুইটগুলিতে রাজ্যপাল লিখেছেন, ‘‌এক চার্টার্ড অ্যাকান্ট্যান্টকে গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ। আর তার পিছনে রয়েছে রাজনৈতিক অভিসন্ধি। রাজ্যপালের অভিযোগ, কয়লা ও গরু পাচারকারীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। আর তাতে বিভিন্নভাবে বাধা দেওয়ার চেষ্টা চলছে। আপনারা যে আইনের ঊর্ধ্বে নন তা কেন ভুলে যাচ্ছেন?‌’‌

রাজ্যপাল এদিন রাজ্যের পুলিশ–প্রশাসনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন, ‘‌কয়লা ও গরু পাচারকারীদের বিরুদ্ধে অভিযানকে রুখতে চাইছেন উর্দিধারী সুবিধাভোগীরা। যাঁরা এই অতিরিক্ত আইনি অপারেশনের নেতৃত্ব দিচ্ছেন তাঁরা হয়তো অবগত নযন যে এই দুষ্কর্মগুলির ফলাফল প্রায়শই হিতের বিপরীত হয়।’‌

এদিনের শেষ টুইটে রাজ্যপাল জানিয়েছেন, ‘‌রাজ্যপাল হিসেবে সংবিধান ও আইনের সুরক্ষা করার পাশাপাশি এই রাজ্যের মানুষের জন্য কাজ করার শপথ নিয়েছি আমি। এবং সেই শপথের সত্যতা প্রমাণ করার জন্য আমি সকল পদক্ষেপ করব। যাতে সরকারি কর্মচারীরা রাজনৈতিকভাবে নিরপেক্ষ হন তা দেখাও আমার কর্তব্য।’‌

উল্লেখ্য, এদিনই দার্জিলিংয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে বৈঠক করেন বিধানসভার বিরোধী দলনেতা আবদুল মান্নান। রবিবার দার্জিলিংয়ের রাজভবনে এই বৈঠক হয়। মান্নান সাহেব একে ‘সৌজন্য বৈঠক’ বলে দাবি করলেও পরে এক বিবৃতিতে রাজ্যপাল রাজ্যে নিরপেক্ষ নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

বন্ধ করুন