বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে রোগী ভর্তি না করায় ৭ হাসপাতালকে শো-কজ, শুনানি ৩ নভেম্বর
স্বাস্থ্যসাথী কার্ড হাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি
স্বাস্থ্যসাথী কার্ড হাতে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে রোগী ভর্তি না করায় ৭ হাসপাতালকে শো-কজ, শুনানি ৩ নভেম্বর

  • স্বাস্থ্য কমিশনের চেয়ারম্যান অসীমকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড না নেওয়ায় গত দেড় মাসে আমাদের কাছে ১০টি অভিযোগ জমা পড়েছে।

স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে রোগী ভর্তি করতে অস্বীকার করায় রাজ্যের ৭টি বেসরকারি হাসপাতালকে শো-কজ করল রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশন। কমিশনের তরফে জানানো হয়েছে, আগামী ৩ নভেম্বর এই হাসপাতালগুলির বিরুদ্ধে অভিযোগের শুনানি হবে। স্বাস্থ্যসাথী কার্ড গ্রহণ না করলে বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে সম্প্রতি সতর্ক করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

স্বাস্থ্য কমিশনের চেয়ারম্যান অসীমকুমার বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, স্বাস্থ্যসাথী কার্ড না নেওয়ায় গত দেড় মাসে আমাদের কাছে ১০টি অভিযোগ জমা পড়েছে। তার মধ্যে ৭টি হাসপাতালকে আমরা ইতিমধ্যে শো-কজ করেছি। আগামী ৩ নভেম্বরের মধ্যে তাঁদের জবাবদিহি করতে বলা হয়েছে। ওই দিন ৭টি অভিযোগেরই শুনানি হবে।

রাজ্যে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় ফিরে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের সূচনা করেছিল তৃণমূল কংগ্রেসের সরকার। এই প্রকল্পের অধীনে সমস্ত পরিবারের বছরে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনামূল্যে চিকিৎসা পাওয়ার কথা। অভিযোগ, রাজ্যের বহু বেসরকারি হাসপাতাল স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে রোগী ভর্তি করতে চায় না। হাসপাতালগুলির পালটা সাফাই, স্বাস্থ্যসাথীর অধীনে চিকিৎসা পরিষেবার যে দর বেঁধে দেওয়া রয়েছে তাতে চিকিৎসা করা সম্ভব নয়। কোনও হাসপাতাল এই প্রকল্পের অধীনে পরিষেবা দিলে তদের বকেয়া মেটাতে গড়িমসি করে রাজ্য সরকার।

 

বন্ধ করুন