বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কোনো রাসায়নিক নয়, জলকামানে মেশানো হয়েছিল হোলির রং, জানালেন মুখ্যসচিব
বৃহস্পতিবার বিজেপির বিক্ষোভকারীদের হঠাতে জলকামান ব্যবহার করছে পুলিশ (AFP)
বৃহস্পতিবার বিজেপির বিক্ষোভকারীদের হঠাতে জলকামান ব্যবহার করছে পুলিশ (AFP)

কোনো রাসায়নিক নয়, জলকামানে মেশানো হয়েছিল হোলির রং, জানালেন মুখ্যসচিব

  • এর পরই সাংবাদিক বৈঠক করেন আলাপন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, এদিন জলকামান থেকে যে রঙীন জল ছোড়া হয়েছে তাতে মেশানো ছিল সাধারণ হোলির রং।

বিজেপির নবান্ন অভিযানে বৃহস্পতিবার যে নীল জল ছেটানো হয়েছে তা নেহাতই দোলের রং। বৃহস্পতিবার বিকেলে এক সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানান পশ্চিমবঙ্গের স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি জানান, নবান্ন অভিযান করতে যে আবেদন বিজেপির জমা দিয়েছিল তাতে ১ লক্ষ মানুষের জমায়েতের অনুমান দেওয়া হয়েছিল। কেন্দ্রের মহামারি সংক্রন্ত বিধি মেনে ওই জমায়েতের অনুমতি সরকারের পক্ষে দেওয়া সম্ভব ছিল না। 

এদিন হাওড়ায় বিজেপি কর্মীদের ওপর নীল জল ছেটানো নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। গাঢ় নীল রঙের ওই জল ছোড়া হয় জলকামান থেকে। বিজেপির দাবি, ওই জল গায়ে লাগার পর অনেকের ত্বকে জ্বালা করতে থাকে। বিকেলে এক সাংবাদিক বৈঠকে ওই জলে কী মেশানো ছিল তা তদন্তের দাবি জানান বিজেপি যুব মোর্চার কেন্দ্রীয় সভাপতি তেজস্বী সূর্য। 

এর পরই সাংবাদিক বৈঠক করেন আলাপন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান, এদিন জলকামান থেকে যে রঙীন জল ছোড়া হয়েছে তাতে মেশানো ছিল সাধারণ হোলির রং। বিক্ষোভ শেষের পর কোনও কারণে বিক্ষোভকারীদের চিহ্নিত করতে হলে রঙীন জল গোটা বিশ্বে ব্যবহার করা হয়। তাতে অন্য কোনও রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়নি।

মুখ্যসচিব এদিন জানিয়েছেন, বিজেপির কর্মসূচিতে কলকাতায় ৮৯ জন ও হাওড়ায় ২৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ। তার মধ্যে বেশ কয়েকজনকে ছেড়েও দেওয়া হয়েছে। বিক্ষোভকারীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল ছুড়েছে। তাতে বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

 

বন্ধ করুন