বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘নিখোঁজ অমিত শাহ’- কলকাতা ও দিল্লিতে দায়ের হল ‘‌মিসিং ডায়েরি’
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। 
কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। 

‘নিখোঁজ অমিত শাহ’- কলকাতা ও দিল্লিতে দায়ের হল ‘‌মিসিং ডায়েরি’

  • নিখোঁজ দাবি করে দিল্লিতে ‘‌মিসিং ডায়েরি’‌ করেছে কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন ন্যাশনাল স্টুডেন্টস ইউনিয়ন অফ ইন্ডিয়া। আবার একই অভিযোগ দায়ের করেছে তৃণমূল কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন তৃণমূল ছাত্র পরিষদ।

রাজ্য থেকে রাজধানী কোথাও নাকি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। এমনকী নিখোঁজ দাবি করে দিল্লিতে ‘‌মিসিং ডায়েরি’‌ করেছে কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন ন্যাশনাল স্টুডেন্টস ইউনিয়ন অফ ইন্ডিয়া। আবার একই অভিযোগ দায়ের করেছে তৃণমূল কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন তৃণমূল ছাত্র পরিষদ। তারা ভবানীপুর থানায় মিসিং ডায়েরি করে। আর এই অভিযোগটি দায়ের করেছেন দক্ষিণ কলকাতার তৃণমূল ছাত্র পরিষদের নেতা অভিরূপ মুখোপাধ্যায়।

এদিন অভিরূপ মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘বিধানসভা নির্বাচনের সময় বাংলায় দিন–রাত দেখা যেত অমিত শাহকে। কিন্তু ভোট শেষ হতেই তাঁর পাত্তা নেই। তাই আমি উদ্বিগ্ন। উনি কোথায় আছেন, কেমন আছেন এই নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন। আপনি কড়া ব্যবস্থা নিয়ে আমায় স্বস্তি দিন। আমি বাধিত থাকব।’‌ এখানেই শেষ নয়, মিসিং ডায়েরিতে অভিরূপ দাবি করেছেন, নির্বাচনের আগে একাধিকবার এসেছেন উনি। বাংলায় করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের উৎস অমিত শাহই। তাই তাঁর উপস্থিতি একান্ত কাম্য।

উল্লেখ্য, দিল্লির পার্লামেন্ট স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন এনএসইউআই–র জাতীয় সাধারণ সম্পাদক নাগেশ কারিয়াপ্পা। তাঁর অভিযোগ একই। নিখোঁজ অমিত শাহ। তাঁর কথায়, ‘‌দেশের এই মহামারী পরিস্থিতিতে নিখোঁজ কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। অমিত শাহ কি দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী না শুধু বিজেপির? আমরা কেন্দ্রীয় সরকারের উত্তরের অপেক্ষায় আছি।’‌

এনএসইউআই–র জাতীয় সম্পাদক এবং মুখপাত্র লোকেশ চুঘ বলেন, ‘‌২০১৩ সাল পর্যন্ত নাগরিকদের প্রতি দায়িত্ববান ছিলেন রাজনীতিকরা। আর ২০১৪ সালে বিজেপি ক্ষমতায় আসার পর পরিস্থিতি বদলে গিয়েছে।’‌ পুলিশ সূত্রে খবর, কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠনের নেতারা কন্ট্রোলরুমে ফোন করে জানিয়েছিলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর খোঁজ মিলছে না। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে এনএসইউআই–র কার্যালয়ে গিয়েছিল পুলিশ।

বন্ধ করুন