বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নবান্ন অভিযানে উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের লাইসেন্স জম্মু কাশ্মীরের, জানাল হাওড়া পুলিশ
হাওড়া পুলিশের প্রকাশ করা আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স সংক্রান্ত নথি
হাওড়া পুলিশের প্রকাশ করা আগ্নেয়াস্ত্রের লাইসেন্স সংক্রান্ত নথি

নবান্ন অভিযানে উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের লাইসেন্স জম্মু কাশ্মীরের, জানাল হাওড়া পুলিশ

  • কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে নথিভুক্ত তথ্য অনুসারে অস্ত্রটির লাইসেন্স জারি করা হয়েছে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলা থেকে। জেলাশাসকের দফতর থেকে ওই অস্ত্রের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। তবে অস্ত্রটি জেলার বাইরে ব্যবহার করা নিষেধ।

বিজেপির নবান্ন অভিযান কর্মসূচি থেকে অস্ত্র উদ্ধারে পালটা যুক্তি পুলিশের। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ওই অস্ত্র সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করে হাওড়া সিটি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, অস্ত্রের লাইসেন্স থাকলেও তা জম্মু কাশ্মীরের রাজৌরি জেলার বাইরে ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা ছিল। ফলে ওই অস্ত্র নিয়ে পশ্চিমবঙ্গে আসা বেআইনি। 

বৃহস্পতিবার বিজেপির নবান্ন চলো কর্মসূচি চলাকালীন হাওড়া ময়দানে এক ব্যক্তির থেকে ১টি অগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করেন পুলিশকর্মীরা। এর জেরে চাপে পড়ে যায় বিজেপি। প্রথমে এটা তৃণমূলের কাজ বলে উল্লেখ করলেও পরে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, যে অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে তার লাইসেন্স রয়েছে। অস্ত্র নিয়ে প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ানোয় এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশের দাবি, বিজেপির বিক্ষোভ চলাকালীন ওই ব্যক্তি গুলি চালানোর উপক্রম করছিলেন। তখনই গ্রেফতার করা হয় তাঁকে। উদ্ধার করা হয় অস্ত্রটি। তদন্তে নেমে পুলিশকর্মীরা জানতে পেরেছেন, ধৃতের নাম বলবিন্দর সিং। তিনি পঞ্জাবের ভাটিন্ডার বাসিন্দা। বিজেপি যুব মোর্চার নেতা প্রিয়াংগুর দেহরক্ষী তিনি। 

কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে নথিভুক্ত তথ্য অনুসারে অস্ত্রটির লাইসেন্স জারি করা হয়েছে কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলা থেকে। জেলাশাসকের দফতর থেকে ওই অস্ত্রের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। তবে অস্ত্রটি জেলার বাইরে ব্যবহার করা নিষেধ। ফলে পশ্চিমবঙ্গে ওই অস্ত্র ব্যবহার বেআইনি। পুলিশ সূত্রের খবর, বেআইনি ভাবে অস্ত্রের ব্যবহারের অভিযোগ আনা হয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। 

 

বন্ধ করুন