বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সবজির দাম আকাশছোঁয়া, ছ্যাঁকা খাচ্ছে মধ্যবিত্ত, কেন এত বাড়ছে দাম? জানুন
আকাশছোঁয়া সবজির দাম। প্রতীকী ছবি : ইনস্টাগ্রাম ( Instagram)
আকাশছোঁয়া সবজির দাম। প্রতীকী ছবি : ইনস্টাগ্রাম ( Instagram)

সবজির দাম আকাশছোঁয়া, ছ্যাঁকা খাচ্ছে মধ্যবিত্ত, কেন এত বাড়ছে দাম? জানুন

  • শহরের অন্যান্য বাজারে দাম এখনও বেশি। বিক্রেতারা স্বীকার করছেন এই মূল্যবৃদ্ধির কথা।

শীতকাল পড়েছে। কিন্তু তারপরও সবজির বাজারদর আগুন হয়ে রয়েছে। এখন ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, পিয়াঁজকলি খাওয়ার কথা। কিন্তু আকাশছোঁয়া সবজির দাম হওয়ায় তা কিনতে নাভিশ্বাস উঠেছে মধ্যবিত্ত মানুষজনের। তাই শীত পড়লেও সবজি পাতে পড়ছে না মধ্যবিত্তের। সবজির দাম শুনলেই ছ্যাঁকা লাগছে ক্রেতাদের।

শহরের অন্যান্য বাজারে দাম এখনও বেশি। বিক্রেতারা স্বীকার করছেন এই মূল্যবৃদ্ধির কথা। মানিকতলা, লেক মার্কেট, গড়িয়াহাট মার্কেট–সহ শহরের বাজারগুলিতে ছ্যাঁকা লাগার মতো দাম সবজির। কেমন দাম সবজির?‌ পটল (কেজি প্রতি) ১২০ টাকা, উচ্ছে (কেজি প্রতি) ৮০ টাকা, বেগুন (কেজি প্রতি) ৬০ টাকা, ঝিঙে (কেজি প্রতি) ৮০ টাকা, ক্যাপসিকাম (কেজি প্রতি) ৮০–১০০ টাকা, সাদা সিম (কেজি প্রতি) ১০০ টাকা, ফুলকপি (পিস প্রতি) ৪০ টাকা, বাঁধাকপি (পিস প্রতি) ৩০–৪০ টাকা, সজনে ডাঁটা (কেজি প্রতি) ৩০০–৩৫০ টাকা, লাউ (পিস প্রতি) ৭০ টাকা, টমেটো (কেজি প্রতি) ৭০ টাকা, পালং (কেজি প্রতি) ৪০ টাকা, কচু (কেজি প্রতি) ৫০ টাকা, ঢ্যাঁড়শ (কেজি প্রতি) ১২০ টাকা, মূলো (কেজি প্রতি) ৪০ টাকা।

শীতকাল পড়েছে। কিন্তু তারপরও সবজির বাজারদর আগুন হয়ে রয়েছে। এখন ফুলকপি, বাঁধাকপি, শিম, পিয়াঁজকলি খাওয়ার কথা। কিন্তু আকাশছোঁয়া সবজির দাম হওয়ায় তা কিনতে নাভিশ্বাস উঠেছে মধ্যবিত্ত মানুষজনের। তাই শীত পড়লেও সবজি পাতে পড়ছে না মধ্যবিত্তের। সবজির দাম শুনলেই ছ্যাঁকা লাগছে ক্রেতাদের।

শহরের অন্যান্য বাজারে দাম এখনও বেশি। বিক্রেতারা স্বীকার করছেন এই মূল্যবৃদ্ধির কথা। মানিকতলা, লেক মার্কেট, গড়িয়াহাট মার্কেট–সহ শহরের বাজারগুলিতে ছ্যাঁকা লাগার মতো দাম সবজির। কেমন দাম সবজির?‌ পটল (কেজি প্রতি) ১২০ টাকা, উচ্ছে (কেজি প্রতি) ৮০ টাকা, বেগুন (কেজি প্রতি) ৬০ টাকা, ঝিঙে (কেজি প্রতি) ৮০ টাকা, ক্যাপসিকাম (কেজি প্রতি) ৮০–১০০ টাকা, সাদা সিম (কেজি প্রতি) ১০০ টাকা, ফুলকপি (পিস প্রতি) ৪০ টাকা, বাঁধাকপি (পিস প্রতি) ৩০–৪০ টাকা, সজনে ডাঁটা (কেজি প্রতি) ৩০০–৩৫০ টাকা, লাউ (পিস প্রতি) ৭০ টাকা, টমেটো (কেজি প্রতি) ৭০ টাকা, পালং (কেজি প্রতি) ৪০ টাকা, কচু (কেজি প্রতি) ৫০ টাকা, ঢ্যাঁড়শ (কেজি প্রতি) ১২০ টাকা, মূলো (কেজি প্রতি) ৪০ টাকা।|#+|

এই দামের তালিকা শুনে অনেকের মুখ শুকিয়ে যাচ্ছে। কারণ এটা শীতের স্বাভাবিক দাম নয়। কেন এত সবজির দাম?‌ তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। সবজি বিক্রেতারা বলছেন, শীতকালের বৃষ্টিতে মাঠেই নষ্ট হয়েছে অনেক সবজি। পাইকারি দামের সূচক বেড়ে গিয়েছে। যার প্রভাব পড়েছে খুচরো বাজারে। আর তাই বাজারে দাম বেড়েছে সবজি–আনাজের।

এছাড়া রয়েছে পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি। যার ফলে পরিবহণ খরচ বেড়ে যাচ্ছে। তা তুলতে হচ্ছে সবজির দামের সঙ্গে যোগ করেই। ফলে বাজারদর বেড়ে যাচ্ছে। আর সেটা কিনতে গিয়ে নাভিশ্বাস উঠেছে মধ্যবিত্ত মানুষজনের। তাই এই বছর শীতে সবজির দাম মধ্যবিত্তের নাগালের মধ্যে আসবে না বলেই মনে করা হচ্ছে।

বন্ধ করুন