বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বড় স্তনযুগলে তৈরি হচ্ছে সমস্যা!‌ সরকারি হাসপাতালে অস্ত্রোপচার বাড়ছে মহিলাদের
বড় স্তনযুগলে তৈরি হচ্ছে সমস্যা!‌ সরকারি হাসপাতালে অস্ত্রোপচার বাড়ছে মহিলাদের। (ছবিটি প্রতীকী)

বড় স্তনযুগলে তৈরি হচ্ছে সমস্যা!‌ সরকারি হাসপাতালে অস্ত্রোপচার বাড়ছে মহিলাদের

  • এমন ধরনের সমস্যা নিয়ে সরকারি হাসপাতালে হাজির হচ্ছেন অনেকেই।

বড় স্তনযুগল শারীরিক সৌন্দর্য নষ্ট করছে। তাই তা অস্ত্রোপচার করে ছোট করতে চাইছেন অনেক যুবতী– মহিলা। স্তনের ওজন বেড়ে যাওয়ায় নানা সমস্যা দেখা দিচ্ছে। তখন এই মাংসপিণ্ড নিয়ে হাঁটাচলা খুব কষ্টকর হয়ে উঠছে। এমন ধরনের সমস্যা নিয়ে সরকারি হাসপাতালে হাজির হচ্ছেন অনেকেই। বিশেষ করে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে এই নিয়ে ভর্তি হচ্ছেন বহু নারী বলে সূত্রের খবর। মাত্র ৫ ঘণ্টায় বিনামূল্যে সেই অস্ত্রোপচার করা হচ্ছে।

কেন এমন করাচ্ছেন মহিলারা?‌ হাসপাতাল সূত্রে খবর, ম্যাক্রোম্যাসটিয়ায় আক্রান্ত হচ্ছেন বাংলার একাধিক মহিলা। এই অসুখে স্তনযুগলের ওজন যদি আড়াই কেজির স্পর্শ করে তবে তার নাম ম্যাক্রোম্যাসটিয়া। আরও বেশি ওজন হলে তাকে বলে জাইজানটোম্যাসটিয়া। এই ধরনের অসুখে আক্রান্ত হয়েই স্তনের আকার ছোট করছেন মহিলারা।

বড় স্তনের নানা অসুবিধা। কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের ব্রেস্ট এন্ডোক্রাইন বিভাগের প্রধান ডাঃ ধৃতিমান মৈত্র জানান, অতিরিক্ত বড় স্তন শরীরে নানা সমস্যা তৈরি করে। অন্তর্বাস পরতে অসুবিধা হয় এবং ব্যখ্যা অনুভব করেন মহিলারা। মহিলাদের স্তন অতিরিক্ত বড় হলে রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক হয় না। এখন সবাই অত্যন্ত সচেতন। তাই স্তনের আকার ছোট করার দিকে ঝুঁকছেন।

এই স্তনের আকার ছোট করতেই কসমেটিক ব্রেস্ট প্রসিডিওর। যাকে বাংলায় বলা হয়, স্তন ছোট করার অস্ত্রোপচার। কেমনভাবে তা হয়?‌ হাসাপাতাল সূত্রে খবর, এই অস্ত্রোপচারে প্রথমে একটা স্কেচ আঁকা হয়। তার পর সেই আঁকা দেখে ঠিক হয়, বৃহৎ স্তনযুগল কোন আকারে আনা হবে। অস্ত্রোপচার করে অতিরিক্ত অংশ বাদ দেওয়া হয়। তাতে স্তনবৃন্ত সঠিক আকার পায়। এখানে দুটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ ‘রিসেপ’ আর ‘রিমডেলিং’। ইলেক্ট্রো কর্টারি দিয়ে স্তনের অতিরিক্ত টিস্যু বাদ দেওয়া হয়। জেনারেল অ্যানাস্থেশিয়াতেই তা করা সম্ভব। এমনকী টিস্যুকে বায়োপসি করেও দেখা হয়। বেসরকারি হাসপাতালে প্রচুর খরচ বলেই এখন সরকারি হাসপাতালে বিনামূল্যে তা করা হচ্ছে। অন্তর্বাস ফেটে বেরিয়ে আসা স্তনকে স্বাভাবিক করাই এখন ট্রেন্ড বলে মনে করছেন চিকিৎসকরা।

বন্ধ করুন