বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নিয়ম মেনে বদলির তালিকা পাঠাতাম, অজ্ঞাত কারণে ফেরত আসত: প্রাক্তন স্বাস্থ্যকর্তা
এই ফেসবুক পোস্ট করেছিলেন চিকিৎসক অবন্তিকা ভট্টাচার্য (সংগৃহীত)
এই ফেসবুক পোস্ট করেছিলেন চিকিৎসক অবন্তিকা ভট্টাচার্য (সংগৃহীত)

নিয়ম মেনে বদলির তালিকা পাঠাতাম, অজ্ঞাত কারণে ফেরত আসত: প্রাক্তন স্বাস্থ্যকর্তা

  • তিনি বলেন, ‘‌ এইটা একটা অদৃশ্য বিষয়। কে করছেন, কেন করছেন তার কোনও কারণ কোথাও লেখা হত না। অথচ অজ্ঞাত কারণে সেই তালিকা নবান্নে গিয়ে আবার ফেরত চলে আসত।’‌

রাজ্যের বদলি নীতি নিয়ে মহিলা চিকিৎসকের আত্মঘাতী হওয়ার ঘটনায় এবার মুখ খুললেন প্রাক্তন স্বাস্থ্য অধিকর্তা। যা নিয়ে জল্পনা আরও তুঙ্গে উঠেছে। প্রাক্তন স্বাস্থ্যকর্তা প্রদীপ মিত্রের দাবি, নিয়ম মেনে বদলির তালিকা নবান্ন পাঠানো হলেও তা কোনও অদৃশ্য কারণে বারবার ফেরত এসেছে! কে করছেন, কেন করছেন, তার কোনও কারণ কোথাও লেখা হত না।

সরকারের বদলি নীতির প্রতিবাদে গায়ে অ্যালকোহল ঢেলে আত্মঘাতী হয়েছেন মহিলা চিকিৎসক। তা নিয়ে গোটা রাজ্যে তোলপাড় শুরু হয়েছে। বিতর্কের নেপথ্যে সরকারের বদলি নীতিতে স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠে এসেছে।

ঘটনা প্রসঙ্গে প্রাক্তন স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিকর্তা প্রদীপ মিত্র বলেন, ‘‌খুব অল্প সময়ের জন্য ওই পদে আমাকে রাখা হয়েছিল। তখনই আমি বদলি নীতি নিয়ে সরব হয়েছিলাম। এমনকী, নিয়ম মেনে বদলির একটি তালিকাও তৈরি করেছিলাম। যাঁরা জেলায় বহুদিন ধরে বাড়ি ছেড়ে অনেক দূরে কাজ করছেন, তাঁদের বাড়ির কাছাকাছি যাতে বদলি করা যেতে পারে, সেই অনুযায়ী এই তালিকা তৈরি হয়েছিল। তবে ওই পর্যন্তই। সেই তালিকা কার্যকর করা হয়নি অথচ একাধিকবার নবান্নে গিয়েও কোনও অজ্ঞাত কারণে সেটি বারবার ফেরত এসেছে।

তিনি আরও বলেন, ‘‌ এইটা একটা অদৃশ্য বিষয়। কে করছেন, কেন করছেন তার কোনও কারণ কোথাও লেখা হত না। অথচ অজ্ঞাত কারণে সেই তালিকা নবান্নে গিয়ে আবার ফেরত চলে আসত।’‌

চিকিৎসকদের অভিযোগ, চিকিৎসকদের একাংশ কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকার মেডিক্যাল কলেজগুলোতে কর্মরত রয়েছেন। আর অপর অংশের চিকিৎসকরা বছরের-পর-বছর বাড়ি ঘর ছেড়ে জেলাতেই পড়ে থাকছেন। আবার তাঁদের জেলাতেই বদলি করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ। ফলে, তাঁরা আর নিজের পরিবারের কাছে ফিরতে পারছেন না। অবসাদে ভুগতে শুরু করছেন অনেক চিকিৎসকরা।

সরকারের বদলি নীতি নিয়ে সরব হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেওয়া চিকিৎসক অবন্তিকা ভট্টাচার্য । ১৬ অগস্ট নিজের বেহালার বাড়িতেই গায়ে অ্যালকোহল ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মঘাতী হন তিনি। গত দু’‌সপ্তাহ মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর অবশেষে সোমবার এসএসকেএম হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

তিনি আরও বলেন, ‘‌ এইটা একটা অদৃশ্য বিষয়। কে করছেন, কেন করছেন তার কোনও কারণ কোথাও লেখা হত না। অথচ অজ্ঞাত কারণে সেই তালিকা নবান্নে গিয়ে আবার ফেরত চলে আসত।’‌

চিকিৎসকদের অভিযোগ, চিকিৎসকদের একাংশ কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকার মেডিক্যাল কলেজগুলোতে কর্মরত রয়েছেন। আর অপর অংশের চিকিৎসকরা বছরের-পর-বছর বাড়ি ঘর ছেড়ে জেলাতেই পড়ে থাকছেন। আবার তাঁদের জেলাতেই বদলি করে দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ। ফলে, তাঁরা আর নিজের পরিবারের কাছে ফিরতে পারছেন না। অবসাদে ভুগতে শুরু করছেন অনেক চিকিৎসকরা।

সরকারের বদলি নীতি নিয়ে সরব হয়ে আত্মহত্যার পথ বেছে নেওয়া চিকিৎসক অবন্তিকা ভট্টাচার্য । ১৬ অগস্ট নিজের বেহালার বাড়িতেই গায়ে অ্যালকোহল ঢেলে আগুন লাগিয়ে আত্মঘাতী হন তিনি। গত দু’‌সপ্তাহ মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ার পর অবশেষে সোমবার এসএসকেএম হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

|#+|

 

বন্ধ করুন