বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > তপ্ত আরজি কর, এবার কর্মবিরতিতে মেডিক্যাল ইন্টার্নরা, পরিষেবার কী হবে?
আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল
আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল

তপ্ত আরজি কর, এবার কর্মবিরতিতে মেডিক্যাল ইন্টার্নরা, পরিষেবার কী হবে?

  • অনেকের মতে, পুজোর দিনগুলিতে ইন্টার্নরা হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের কাছে বড় ভরসা। এবার তাঁরাই গেলেন কর্মবিরতিতে।

মাঝে জট কেটে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার আশা দেখেছিলেন অনেকেই। কিন্তু বাস্তবে যে জট কোনও অংশে কাটেনি তা বোঝা গেল এতদিনে। ফের ছাত্র আন্দোলনে তপ্ত আরজিকর। উৎসবের মরশুমে শনিবার দুপুর থেকে কর্মবিরতি ঘোষণা করে দিলেন ইন্টার্নরা। এই সিদ্ধান্তকে ঘিরে ব্য়াপক শোরগোল শুরু হয়ে গিয়েছে স্বাস্থ্য় দফতরের অন্দরে। এদিকে অনেকের মতে, পুজোর দিনগুলিতে ইন্টার্নরা হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের কাছে বড় ভরসা। এবার তাঁরাই গেলেন কর্মবিরতিতে। প্রিন্সিপ্যালের পদত্যাগের দাবিতে সরব হয়েছেন তাঁরা। তবে প্রিন্সিপালের পালটা দাবি, এটা বহিরাগতদের আন্দোলন। 

এদিকে আন্দোলনকারীদের দাবি, ইতিমধ্যেই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে প্রিন্সিপ্য়াল রীতিমতো হুমকি দিচ্ছেন পড়ুয়াদের। এরপরই এনিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আন্দোলনকারীরা। এরপরই কর্মবিরতির সিদ্ধান্ত নেন ইন্টার্নরা। অন্য়দিকে সিনিয়র হাউজ স্টাফরা আগেই কর্মবিরতিতে গিয়েছিলেন। এবার সেই পথেই হাঁটলেন ইন্টার্নরাও। 

এদিকে গত আড়াই মাস ধরেই নিরপেক্ষ হস্টেল কাউন্সিল সহ নানা দাবিতে আন্দোলন চলছিল।  সামগ্রিক পরিস্থিতিতে আন্দোলনকারীদের বাড়িতেও চিঠি পাঠিয়েছিল কলেজ কর্তৃপক্ষ। আপনার সন্তানেরা গর্হিত কাজ করছে বলে উল্লেখ করা হয় চিঠিতে। এমনটাই দাবি আন্দোলনকারীদের। পাশাপাশি তাদের বাড়িতেও পুলিশ যায় বলে আন্দোলনকারীদের দাবি। এসব নিয়ে প্রিন্সিপ্যালের কাছে ব্যাখা চাইতে গিয়েছিলেন আন্দোলনকারীরা। এদিকে প্রিন্সিপালের দাবি, সকলে আন্দোলন করছেন না। কয়েকজন নকশালপন্থী বহিরাগত বিক্ষোভ করছে।

 

মাঝে জট কেটে গিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার আশা দেখেছিলেন অনেকেই। কিন্তু বাস্তবে যে জট কোনও অংশে কাটেনি তা বোঝা গেল এতদিনে। ফের ছাত্র আন্দোলনে তপ্ত আরজিকর। উৎসবের মরশুমে শনিবার দুপুর থেকে কর্মবিরতি ঘোষণা করে দিলেন ইন্টার্নরা। এই সিদ্ধান্তকে ঘিরে ব্য়াপক শোরগোল শুরু হয়ে গিয়েছে স্বাস্থ্য় দফতরের অন্দরে। এদিকে অনেকের মতে, পুজোর দিনগুলিতে ইন্টার্নরা হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের কাছে বড় ভরসা। এবার তাঁরাই গেলেন কর্মবিরতিতে। প্রিন্সিপ্যালের পদত্যাগের দাবিতে সরব হয়েছেন তাঁরা। তবে প্রিন্সিপালের পালটা দাবি, এটা বহিরাগতদের আন্দোলন। 

এদিকে আন্দোলনকারীদের দাবি, ইতিমধ্যেই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে প্রিন্সিপ্য়াল রীতিমতো হুমকি দিচ্ছেন পড়ুয়াদের। এরপরই এনিয়ে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আন্দোলনকারীরা। এরপরই কর্মবিরতির সিদ্ধান্ত নেন ইন্টার্নরা। অন্য়দিকে সিনিয়র হাউজ স্টাফরা আগেই কর্মবিরতিতে গিয়েছিলেন। এবার সেই পথেই হাঁটলেন ইন্টার্নরাও। 

এদিকে গত আড়াই মাস ধরেই নিরপেক্ষ হস্টেল কাউন্সিল সহ নানা দাবিতে আন্দোলন চলছিল।  সামগ্রিক পরিস্থিতিতে আন্দোলনকারীদের বাড়িতেও চিঠি পাঠিয়েছিল কলেজ কর্তৃপক্ষ। আপনার সন্তানেরা গর্হিত কাজ করছে বলে উল্লেখ করা হয় চিঠিতে। এমনটাই দাবি আন্দোলনকারীদের। পাশাপাশি তাদের বাড়িতেও পুলিশ যায় বলে আন্দোলনকারীদের দাবি। এসব নিয়ে প্রিন্সিপ্যালের কাছে ব্যাখা চাইতে গিয়েছিলেন আন্দোলনকারীরা। এদিকে প্রিন্সিপালের দাবি, সকলে আন্দোলন করছেন না। কয়েকজন নকশালপন্থী বহিরাগত বিক্ষোভ করছে।

|#+|

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন