বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌সিপিআইএম কিন্তু সংযুক্ত মোর্চার মালিক নয়’‌, সরাসরি হমকি দিলেন নওশাদ
ভাঙড়ের বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকি। ছবি সৌজন্য–এএনআই।
ভাঙড়ের বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকি। ছবি সৌজন্য–এএনআই।

‘‌সিপিআইএম কিন্তু সংযুক্ত মোর্চার মালিক নয়’‌, সরাসরি হমকি দিলেন নওশাদ

  • শুক্রবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বুঝিয়ে দেন, জোট গঠনের সময় একরকম কথা হলেও এখন সিপিআইএম নেতারা তাঁদের অবস্থান থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গিয়েছে।

আগে একপ্রস্থ হুমকি দিয়েছিলেন। এবার তা চরমে পৌঁছে দিলেন তিনি। সুতরাং সংযুক্ত মোর্চা এখন টিকিয়ে রাখা কঠিন হয়ে পড়ল। এবার সরাসরি মোর্চা ছাড়ার হুঁশিয়ারি দিলেন আইএসএফ চেয়ারম্যান নওশাদ সিদ্দিকি। শুক্রবার কলকাতা প্রেস ক্লাবে এক সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বুঝিয়ে দেন, জোট গঠনের সময় একরকম কথা হলেও এখন সিপিআইএম নেতারা তাঁদের অবস্থান থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গিয়েছে। এই অবস্থায় মোর্চা সংস্রব ত্যাগ করা ছাড়া আর কোনও বিকল্প আইএসএফের কাছে থাকছে না। এই মন্তব্যে আবার ধাক্কা খেতে চলেছে মোর্চা।

আব্বাস সিদ্দিকির উপস্থিতিতে একুশের নির্বাচনের প্রাক্কালে ব্রিগেডের মঞ্চ থেকে পথ চলা শুরু করেছিল সংযুক্ত মোর্চা। কিন্তু এখন ভাইজানের দলই ‘গলার কাঁটা’ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আইএসএফ বিধানসভা নির্বাচনে একটি আসন পেয়েছে। আর বাম–কংগ্রেস শূন্যে নেমে গিয়েছে। বামফ্রন্টের এই ব্যর্থতার জন্য আইএসএফ–কে দায়ী করেছেন বাম শরিকরাও। সদ্য সিপিআইএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি রাজ্য কমিটির বৈঠকে যোগ দিতে এসে বুঝিয়ে দিয়েছেন এটা নির্বাচনের প্রেক্ষিতে জোট হয়েছিল। তা বলে সারাজীবন টেনে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়।

এই জোট ছিল শুধুই নির্বাচনী কেন্দ্রিক বলেছিলেন তিনি। এমনকী অধিক নৈকট্যের দরকার নেই বলে জানিয়ে দেন। তাই সিপিআইএম ও বাকি শরিকদের নিয়ে আইএসএফের কোনও যৌথ কর্মসূচি এখনও পর্যন্ত নেওয়া হয়নি। সীতারামের মন্তব্যের পর সিপিআইএম নেতারাও এই নিয়ে কোনও উচ্চবাচ্য করেননি। ফলে এখন ধৈর্যের বাঁধ ভেঙেছে নওশাদদের।

শুক্রবার এই বিষয়ে নওশাদ ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে বলেন, ‘‌ব্রিগেডের বৈঠকে ঘোষণা হয়েছিল যে সংযুক্ত মোর্চা কোনও নির্বাচনী জোট নয়। এটা একটা আন্দোলনের মঞ্চ। কিন্তু এখন সিপিআইএম উল্টো পথে হাঁটা শুরু করছে। সিপিআইএম কিন্তু সংযুক্ত মোর্চার মালিক নয়। যারা শাসকদলের চাটুকারিতা করছে তাদের নিয়ে সংযুক্ত মোর্চা চলতে পারে না।’‌

বন্ধ করুন