বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > রজ্জুতে সর্পভ্রম, কলকাতা বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণে উঠে এল এমনই তথ্য
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

রজ্জুতে সর্পভ্রম, কলকাতা বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণে উঠে এল এমনই তথ্য

  • চালক জানান, সম্ভবত তেল চুঁইয়ে পড়ছে VT-SYA টেল নম্বরের Boieng 737-800 বিমানের ট্যাঙ্ক থেকে। বিমান আকাশে থাকাকালীন এটিকে একটি গুরুতর জরুরি অবস্থা বলে বিবেচনা করা হয়।

তেল নয়, চুঁইয়ে পড়ছিল জল। তাতেই বাজে বিপদঘন্টি। এর জেরেই বুধবার সকালে কলকাতা বিমানবন্দরে স্পাইসজেটের বিমানকে জরুরি অবতরণ করান পাইলটরা। ইঞ্জিনিয়াররা পরীক্ষা করে দেখেন, তেল নয়, বিমানের একটি জলের ট্যাঙ্ক লিক করে জল চুঁইয়ে পড়ছে। প্রায় ৫ ঘণ্টা পর ফের আকাশে ওড়ে বিমানটি।

বুধবার সকালে মুম্বই থেকে গুয়াহাটিগামী স্পাইসজেটের SG-6480 বিমানটি কলকাতার আকাশসীমায় ৩৩,০০০ ফুট উচ্চতায় থাকাকালীন নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিপদসংকেত পাঠায়। চালক জানান, সম্ভবত তেল চুঁইয়ে পড়ছে VT-SYA টেল নম্বরের Boieng 737-800 বিমানের ট্যাঙ্ক থেকে। বিমান আকাশে থাকাকালীন এটিকে একটি গুরুতর জরুরি অবস্থা বলে বিবেচনা করা হয়। সঙ্গে সঙ্গে কলকাতা বিমানবন্দরে অবতরণের ব্যবস্থা করা হয় বিমানটির। তৈরি রাখা হয় যাবতীয় জরুরি ব্যবস্থা। জরুরি অবস্থা ঘোষণার ৪০ মিনিট পর সকাল ৮.৫৮ মিনিটে দমদম বিমানবন্দরে অবতরণ করে বিমানটি।

অবতরণের পর বিমানটিকে একটি ফাঁকা ট্যাক্সি ওয়েতে রাখে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। বিমান থেকে নামানো হয় যাত্রীদের। এরই মধ্যে পৌঁছে যান ইঞ্জিনিয়াররা। পরীক্ষা করে তাঁরা বুঝতে পারেন, তেল নয়, চুঁইয়ে পড়ছে জল। তাতেই বেজে ওঠে ককপিটের বিপদঘন্টি।

প্রায় ৫ ঘণ্টা বিমানবন্দরে অপেক্ষা করেন যাত্রীরা। অন্য একটি বিমানে তাদের কলকাতা থেকে গুয়াহাটি পৌঁছয় স্পাইসজেট। কিছুক্ষণ পর কলকাতা থেকে উড়ে যায় VT-SYA বিমানটিও।



বন্ধ করুন