বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ঝালদা নিয়ে আদালতে মুখ পুড়ল রাজ্যের, পূর্ণিমা কান্দু হচ্ছেন অস্থায়ী পুরপ্রধান

ঝালদা নিয়ে আদালতে মুখ পুড়ল রাজ্যের, পূর্ণিমা কান্দু হচ্ছেন অস্থায়ী পুরপ্রধান

সোমবার ঝালদা পুরসভায় আস্থা ভোট।

ঝালদা পুরসভায় প্রশাসক নিয়োগ করে রাজ্য। সেই সিদ্ধান্তকে খারিজ করে ঝালদা পুরসভায় চেয়ারম্যান নির্বাচনের নির্দেশ দেয় আদালত। গত ১৫ জানুয়ারি ঝালদায় চেয়ারম্যান হন শীলা চট্টোপাধ্যায়। ১৬ জানুয়ারি দায়িত্বভার নেন তিনি। তার পরদিনই এক নির্দেশিকায় মহকুমাশাসক শীলাদেবীর কাউন্সিলর পদ খারিজ করেন

ঝালদা পুরসভার চেয়ারপার্সন পদে থাকবেন পূর্ণিমা কান্দু। তাঁর কাউন্সিলর পদ খারিজের প্রশাসনিক নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করে চেয়ারপার্সন শীলা চট্টোপাধ্যায়ের করা মামলায় এমনই নির্দেশ দিলেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহা। বৃহস্পতিবারই ঝালদার চেয়ারপার্সনের পদে প্রাক্তন ভাইস চেয়ারম্যান সুদীপ কর্মকারকে বসিয়েছিল রাজ্য।

কাউন্সিলর পদ থেকে তাঁকে অপসারণের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ করে শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন শীলা চট্টোপাধ্যায়। সেই মামলা গ্রহণ করে দ্রুত শুনানির ব্যবস্থা করে আদালত। বিকেলে সেই মামলার শুনানিতে বিচারপতি অমৃতা সিনহা নির্দেশ দেন, আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পূর্ণিমা কান্দু ঝালদা পুরসভার চেয়ারপার্সনের পদ সামলাবেন। সঙ্গে শীলা চট্টোপাধ্যায়ের কাউন্সিলর পদ খারিজের নির্দেশেও স্থগিতাদেশ দেয় আদালত।

আদালতের এই নির্দেশে ঝালদা নিয়ে আইনি লড়াইয়ে রাজ্য সরকার ফের ধাক্কা খেল বলে মনে করা হচ্ছে। এর আগে ঝালদা পুরসভায় প্রশাসক নিয়োগ করে রাজ্য। সেই সিদ্ধান্তকে খারিজ করে ঝালদা পুরসভায় চেয়ারম্যান নির্বাচনের নির্দেশ দেয় আদালত। গত ১৫ জানুয়ারি ঝালদায় চেয়ারম্যান হন শীলা চট্টোপাধ্যায়। ১৬ জানুয়ারি দায়িত্বভার নেন তিনি। তার পরদিনই এক নির্দেশিকায় মহকুমাশাসক শীলাদেবীর কাউন্সিলর পদ খারিজ করেন। প্রশাসনের যুক্তি, নির্বাচনে তৃণমূলের টিকিটে জয়যুক্ত হলেও পরে নিজেকে নির্দল ঘোষণা করেছেন তিনি। যা দলত্যাগবিরোধী আইন বিরোধী। এই মামলার পরবর্তী শুনানি ১০ ফেব্রুয়ারি।

 

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

 

বন্ধ করুন